প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 5টি প্রয়োজনীয় সূচক
সুচিপত্র
ভূমিকা
1. রিলেটিভ স্ট্রেংথ ইনডেক্স (RSI) কী?
2. মুভিং অ্যাভারেজ (MA)
3. মুভিং অ্যাভারেজ কনভারজেন্স ডাইভারজেন্স (MACD)
4. স্টোকাস্টিক RSI (StochRSI)
5. বলিঞ্জার ব্যান্ড (BB)
শেষ কথা
প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 5টি প্রয়োজনীয় সূচক
হোম
নিবন্ধ
প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 5টি প্রয়োজনীয় সূচক

প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 5টি প্রয়োজনীয় সূচক

প্রকাশিত হয়েছে Mar 2, 2020আপডেট হয়েছে Nov 11, 2022
8m

TL;DR

পরীক্ষিত প্রযুক্তিগত বিশ্লেষকদের জন্য সূচকগুলো হল পছন্দের অস্ত্র। তাদের নৈপুণ্যকে কিভাবে আয়ত্ত করতে হয় তা শিখতে প্রতিটি খেলোয়াড় এমন ট্যুলগুলো বেছে নেবে যা তাদের ইউনিক খেলার স্টাইলের জন্য সবচেয়ে উপযুক্ত। কেউ কেউ মার্কেটের গতি দেখতে পছন্দ করে, আবার কেউ কেউ মার্কেটের নয়েজ ফিল্টার করতে বা অস্থিরতা পরিমাপ করতে চায়।

কিন্তু সেরা প্রযুক্তিগত সূচকগুলো কী কী? ঠিক আছে, প্রতিটি ট্রেডার আপনাকে আলাদা আলাদা ব্যাখ্যা করবে। একজন বিশ্লেষক যেটিকে চূড়ান্ত সূচক বলবে, দেখা যাবে অন্য আরেকজন সেটিকে সম্পূর্ণরূপে বাদ দিবে। তবে, খুব জনপ্রিয় কয়েকটি আছে যেগুলোকে আমরা নীচে তালিকাভুক্ত করেছি (RSI, MA, MACD, StochRSI, ও BB)।

এগুলো কী ও কিভাবে ব্যবহার করবেন তা জানতে আগ্রহী? পড়তে থাকুন।


ভূমিকা

ট্রেডাররা কোনো অ্যাসেটের প্রাইস অ্যাকশন সম্পর্কে বাড়তি অন্তর্দৃষ্টি পেতে প্রযুক্তিগত সূচক ব্যবহার করেন। এই সূচকগুলো বর্তমান মার্কেটের পরিস্থিতিতে প্যাটার্নগুলো শনাক্ত করা এবং ক্রয় বা বিক্রয়ের সংকেতগুলোকে চিহ্নিত করা সহজ করে তোলে। বিভিন্ন ধরণের সূচক রয়েছে এবং সেগুলো ডে ট্রেডার, সুইং ট্রেডার ও কখনও কখনও এমনকি দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারীদের দ্বারাও ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। কিছু কিছু পেশাদার বিশ্লেষক ও অ্যাডভান্সড ট্রেডার এমনকি তাদের নিজস্ব সূচকও তৈরি করে। এই নিবন্ধে, আমরা জনপ্রিয় কিছু প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ সূচকের একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ প্রদান করবো যা যেকোনো ট্রেডারের মার্কেট বিশ্লেষণ ট্যুলকিটে কার্যকর হতে পারে।


1. রিলেটিভ স্ট্রেংথ ইনডেক্স (RSI) কী?


রিলেটিভ স্ট্রেংথ ইনডেক্স


RSI হল একটি মোমেন্টাম ইন্ডিকেটর যা কোনো অ্যাসেট ওভারবট নাকি ওভারসোল্ড রয়েছে তা দেখায়। এটি সাম্প্রতিক মূল্য পরিবর্তনের মাত্রা পরিমাপ করে এটি করে (স্ট্যান্ডার্ড সেটিং হল আগের 14টি পিরিয়ড - তাই 14 দিন, 14 ঘন্টা ইত্যাদি)। ডেটা তারপর একটি অসিলেটর হিসেবে প্রদর্শিত হয় যার মান 0 ও 100 এর মধ্যে থাকতে পারে।

RSI হল যেহেতু একটি মোমেন্টাম ইন্ডিকেটর, তাই এটি যে হারে (মোমেন্টাম) মূল্য পরিবর্তন হচ্ছে তা দেখায়। এর মানে হল মূল্য বাড়ার সাথে সাথে যদি মোমেন্টাল বাড়তে থাকে, তাহলে আপট্রেন্ড শক্তিশালী হয় আর অধিক সংখ্যক ক্রেতা প্রবেশ করে। বিপরীতে, মূল্য বাড়ার সময় যদি গতি কমে যায়, তাহলে এটা দেখাতে পারে যে মার্কেটের শীঘ্রই বিক্রেতাদের নিয়ন্ত্রণ চলে যাবে।

RSI এর একটি প্রচলিত ব্যাখ্যা হল যে এটি যখন 70 এর বেশি হয়, তখন অ্যাসেটটি ওভারবট আর যখন এটি 30 এর নিচে হয়, তখন এটি ওভারসোল্ড। সে কারণে চরম ভ্যালু, প্রবণতার সম্ভাব্য বিপরীত অভিমুখ বা পুলব্যাক নির্দেশ করতে পারে। তবুও, এই ভ্যালুগুলোকে সরাসরি ক্রয় বা বিক্রয়ের সংকেত হিসেবে না ভাবাই ভালো হতে পারে। অন্যান্য আরো প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ (TA) কৌশলগুলোর মতো, RSI ভুল বা বিভ্রান্তিকর সংকেত প্রদান করতে পারে, তাই কোনো ট্রেডে প্রবেশ করার আগে অন্যান্য নিয়ামকগুলো বিবেচনা করা সর্বদাই কাজের হতে পারে।

আরো জানতে চান? রিলেটিভ স্ট্রেংথ ইনডেক্স (RSI) বিষয়ে আমাদের নিবন্ধটি দেখুন।


2. মুভিং অ্যাভারেজ (MA)


মুভিং অ্যাভারেজ


কোনো মুভিং অ্যাভারেজ মার্কেটের নয়েজ ফিল্টার করে ও প্রবণতার দিকটি হাইলাইট করে প্রাইস অ্যাকশনকে মসৃণ করে। যেহেতু এটি অতীতের মূল্যের ডেটার উপর নির্ভর করে, তাই এটি একটি ল্যাগিং সূচক

দুটি সর্বাধিক ব্যবহৃত মুভিং অ্যাভারেজ হল সিম্পল মুভিং অ্যাভারেজ (SMA বা MA), ও এক্সপোনেনশিয়াল মুভিং অ্যাভারেজ (EMA)। নির্দিষ্ট সময়কাল থেকে মূল্য ডেটা গ্রহণ করে ও অ্যাভারেজ তৈরি করে SMA চিহ্নিত করা হয়। উদাহরণস্বরূপ, গত 10 দিনের অ্যাভারেজ মূল্য গণনা করে 10 দিনের SMA চিহ্নিত করা হয়। অন্যদিকে, EMA এমনভাবে গণনা করা হয় যা সাম্প্রতিক মূল্যের ডেটাতে অধিক গুরুত্ব দেয়। এটি সাম্প্রতিক প্রাইস অ্যাকশন জন্য এটিকে আরো সক্রিয় করে তোলে।

যেমনটি আমরা উল্লেখ করেছি, মুভিং অ্যাভারেজ হল ল্যাগিং সূচক। পিরিয়ড যত দীর্ঘ, ল্যাগ তত বেশি। সে কারণে, 200 দিনের SMA 50 দিনের SMA থেকে সাম্প্রতিক প্রাইস অ্যাকশনের প্রতি ধীর প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করবে।

ট্রেডাররা প্রায়শই বর্তমান মার্কেটের প্রবণতা পরিমাপ করতে নির্দিষ্ট মুভিং অ্যাভারেজগুলোর সাথে মূল্যের সম্পর্ক ব্যবহার করে। উদাহরণস্বরূপ, মূল্য যদি দীর্ঘ সময়ের জন্য 200 দিনের SMA-এর উপরে থাকে, তাহলে অনেক ট্রেডারের অ্যাসেটটি ঊর্ধ্বমুখী বাজারে রয়েছে বলে মনে করতে পারে।

ট্রেডাররা মুভিং অ্যাভারেজ ক্রসওভারকে ক্রয় বা বিক্রয়ের সংকেত হিসেবে ব্যবহার করতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, যদি 100-দিনের SMA 200-দিনের SMA-কে ক্রস করে, তাহলে এটি বিক্রয়ের সংকেত হিসেবে বিবেচিত হতে পারে। কিন্তু এই ক্রস মানে ঠিক কী? এটি ইঙ্গিত করে যে গত 100 দিনের অ্যাভারেজ মূল্য এখন গত 200 দিনের চেয়ে কম। এখানে বিক্রয় করার পিছনে ধারণাটি হল এই যে স্বল্পমেয়াদী মূল্যের গতিবিধি আর আপট্রেন্ড অনুসরণ করছে না, তাই প্রবণতা বিপরীত হতে পারে।

আরো জানতে চান? মুভিং অ্যাভারেজ সম্পর্কে আমাদের নিবন্ধটি দেখুন।


3. মুভিং অ্যাভারেজ কনভারজেন্স ডাইভারজেন্স (MACD)


মুভিং অ্যাভারেজ কনভার্জেন্স ডাইভার্জেন্স macd


MACD দুটি মুভিং অ্যাভারেজের মধ্যে সম্পর্ক দেখিয়ে কোনো অ্যাসেটের মোমেন্টাম নির্ধারণ করতে ব্যবহৃত হয়। এটি দুটি লাইন দ্বারা গঠিত – MACD লাইন ও সিগন্যাল লাইন। MACD লাইনটি 12 EMA থেকে 26 EMA বিয়োগ করে গণনা করা হয়। এটি তখন MACD লাইনের 9 EMA – সংকেত লাইনের উপর প্লট করা হয়। অনেক চার্টিং ট্যুল প্রায়শই একটি হিস্টোগ্রাম অন্তর্ভুক্ত করে, যা MACD লাইন ও সিগন্যাল লাইনের মধ্যে দূরত্ব প্রদর্শন করে। 

MACD ও প্রাইস অ্যাকশনের মধ্যে ডাইভারজেন্স খোঁজার মাধ্যমে, ট্রেডাররা চলমান প্রবণতার শক্তি সম্পর্কে অন্তর্দৃষ্টি অর্জন করতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, মূল্য যদি হায়ার হাই হয় আর MACD লোয়ার হাই হয়, তাহলে মার্কেট শীঘ্রই রিভার্স হতে পারে। MACD এই ক্ষেত্রে আমাদের কী বলছে? মূল্য বাড়ছে আর মোমেন্টাম কমছে, তাই পুলব্যাক বা রিভার্সিং হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

ট্রেডাররা MACD লাইন ও এর সিগন্যাল লাইনের মধ্যে ক্রসওভার দেখতে এই সূচকটি ব্যবহার করতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, MACD লাইন যদি সিগন্যাল লাইনের উপরে ক্রস করে, তাহলে এটি একটি ক্রয় সংকেত নির্দেশ করতে পারে। বিপরীতে, MACD লাইন যদি সিগন্যাল লাইনের নীচে ক্রস করে, তাহলে এটি একটি বিক্রয় সংকেত নির্দেশ করতে পারে।

উভয়ই ভিন্ন ভিন্ন নিয়ামকের মাধ্যমে মোমেন্টাম পরিমাপ করায় MACD প্রায়শই RSI-এর সাথে সংমিশ্রণে ব্যবহৃত হয়। অনুমানটি হল এই যে তারা একত্রে মার্কেট সম্পর্কে আরো বেশি সামগ্রিক প্রযুক্তিগত চেহারা প্রদর্শন করতে পারে।

আরো জানতে চান? MACD সম্পর্কে আমাদের নিবন্ধটি দেখুন।



ক্রিপ্টোকারেন্সিতে শুরু করতে চাইছেন? Binance-এ বিটকয়েন ক্রয় করুন!



4. স্টোকাস্টিক RSI (StochRSI)


স্টোকাস্টিক rsi


স্টোকাস্টিক RSI হল একটি মোমেন্টাম অসিলেটর যেটি কোনো অ্যাসেট ওভারবট নাকি ওভারসোল্ড তা নির্ধারণ করতে ব্যবহৃত হয়। নাম যা ইঙ্গিত দিচ্ছে তেমন করেই, মূল্য ডেটার পরিবর্তে RSI ভ্যালু থেকে তৈরি হওয়ায় এটি RSI-এর একটি ডেরিভেটিভ। এটি সাধারণ RSI ভ্যালুতে স্টোকাস্টিক অসিলেটর সূত্র নামক একটি সূত্র প্রয়োগ করে তৈরি করা হয়েছে। সাধারণত, স্টোকাস্টিক RSI-এর মান 0 ও 1 (বা 0 ও 100) এর মধ্যে থাকে।

এর উচ্চ গতি ও সংবেদনশীলতার কারণে, StochRSI প্রচুর ট্রেডিং সংকেত তৈরি করতে পারে যা ব্যাখ্যা করা কঠিন হতে পারে। StochRSI সবচেয়ে উপযোগী হতে থাকে যখন এটির সীমার উপরের বা নিম্ন প্রান্তের কাছাকাছি থাকে। 

0.8 এর উপরের কোনো StochRSI রিডিং সাধারণত ওভারবট বলে বিবেচিত হয়, আর 0.2 এর নীচের ভ্যালু ওভারসোল্ড বলে বিবেচিত হতে পারে। 0 ভ্যালু মানে RSI পরিমাপ সময়ের মধ্যে সর্বনিম্ন ভ্যালু (ডিফল্ট সেটিং সাধারণত 14)। বিপরীতভাবে, 1 ভ্যালু পরিমাপের সময়ের মধ্যে RSI-এর সর্বোচ্চ ভ্যালুর প্রতিনিধিত্ব করে।

RSI কিভাবে ব্যবহার করা উচিত সে অনুযায়ী, কোনো ওভারবট বা ওভারসোল্ড StochRSI ভ্যালু থাকা মানে এই নয় যে মূল্য অবশ্যই রিভার্স হবে। StochRSI-এর ক্ষেত্রে, এটি শুধুমাত্র নির্দেশ করে যে RSI ভ্যালুগুলো (যা থেকে StochRSI ভ্যালু উদ্ভূত হয়েছে) তাদের সাম্প্রতিক রিডিংয়ের প্রান্তের কাছাকাছি। এটি মনে রাখাও গুরুত্বপূর্ণ যে RSI সূচকের চেয়ে StochRSI বেশি সংবেদনশীল, তাই এটি বেশি পরিমাণ ভুল বা বিভ্রান্তিকর সিগন্যাল তৈরি করে। 

আরো জানতে চান? Stochastic RSI সম্পর্কে আমাদের নিবন্ধটি দেখুন।


5. বলিঞ্জার ব্যান্ড (BB)


বলিঞ্জার ব্যান্ড


বলিঞ্জার ব্যান্ডগুলো ওভারবট ও ওভারসোল্ড পরিস্থিতির পাশাপাশি মার্কেটের অস্থিরতা পরিমাপ করে। এগুলো তিনটি লাইন - একটি SMA (মাঝারি ব্যান্ড) এবং একটি উচ্চ ও নিম্ন ব্যান্ড দ্বারা গঠিত। সেটিংস ভিন্ন হতে পারে, তবে সাধারণত উপরের ও নিম্ন ব্যান্ডগুলো মধ্যম ব্যান্ড থেকে দুটি স্ট্যান্ডার্ড বিচ্যুতি দূরে থাকে। অস্থিরতা বৃদ্ধি ও হ্রাসের সাথে সাথে ব্যান্ডগুলোর মধ্যে দূরত্ব বৃদ্ধি ও হ্রাস পায়।

সাধারণত মূল্য উপরের ব্যান্ডের যত কাছাকাছি হয়, চার্ট করা অ্যাসেটটি ওভারবট অবস্থার তত কাছাকাছি হতে পারে। বিপরীতভাবে, মূল্য নিম্ন ব্যান্ডের যত কাছাকাছি হয়, এটি ওভারসোল্ড অবস্থার তত কাছাকাছি হতে পারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে, মূল্য ব্যান্ডের মধ্যেই থাকবে, কিন্তু বিরল কিছু ক্ষেত্রে, এটি তাদের উপরে বা নীচে যেতে পারে। এই ইভেন্টটি নিশ্চিতভাবে কোনো ট্রেডিংয়ের সিগন্যাল না হলেও, এটি মার্কেটের চরম পরিস্থিতির ইঙ্গিত হিসেবে কাজ করতে পারে।

BB-এর আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ধারণাকে বলা হয় স্কুইজ। এটি নিম্ন অস্থিরতার সময়কালকে বোঝায়, যেখানে সকল ব্যান্ড একে অপরের খুব কাছাকাছি আসে। এটি সম্ভাব্য ভবিষ্যৎ অস্থিরতার ইঙ্গিত হিসেবে ব্যবহার করা যেতে পারে। বিপরীতভাবে, ব্যান্ডগুলো যদি একে অপরের থেকে খুব দূরে থাকে, তাহলে কম অস্থিরতার সময়কাল আসতে পারে।

আরো জানতে চান? বলিঞ্জার ব্যান্ড সম্পর্কে আমাদের নিবন্ধটি দেখুন।


শেষ কথা

সূচকগুলো ডেটা দেখালেও এটি বিবেচনা করা গুরুত্বপূর্ণ যে সেই ডেটার ব্যাখ্যা অনেক বেশি ব্যক্তি কেন্দ্রিক। সে কারণে, ব্যক্তিগত পক্ষপাতিত্বগুলো আপনার সিদ্ধান্ত গ্রহণের প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করছে কিনা তা ভেবে সময় নিয়ে বিবেচনা করা সর্বদাই কার্যকর। কোনো ট্রেডারের জন্য সরাসরি ক্রয় বা বিক্রয় সংকেত অন্যের জন্য মার্কেট নয়েজ হতে পারে। 

অধিকাংশ মার্কেট বিশ্লেষণের কৌশলগুলোর মতো, সূচক সর্বোত্তম ফলাফল প্রদান করতে পারে তখনই যখন একে অপরের সাথে সংমিশ্রণে বা অন্যান্য পদ্ধতির সাথে ব্যবহার করা হয়, যেমন মৌলিক বিশ্লেষণ (FA)

প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ (TA) শেখার সর্বোত্তম উপায় হল প্রচুর অনুশীলন। Binance-এ গিয়ে আপনার নতুন পাওয়া জ্ঞান পরীক্ষা করুন!