বলিঞ্জার ব্যান্ডের ব্যাখ্যা
সুচিপত্র
বলিঞ্জার ব্যান্ড কী?
ট্রেডিংয়ে কিভাবে বলিঞ্জার ব্যান্ড ব্যবহার করবেন?
বলিঞ্জার ব্যান্ড বনাম কেল্টনার চ্যানেল
বলিঞ্জার ব্যান্ডের ব্যাখ্যা
হোম
নিবন্ধ
বলিঞ্জার ব্যান্ডের ব্যাখ্যা

বলিঞ্জার ব্যান্ডের ব্যাখ্যা

প্রকাশিত হয়েছে Dec 8, 2018আপডেট হয়েছে Nov 11, 2022
5m

বলিঞ্জার ব্যান্ড কী?

বলিঞ্জার ব্যান্ড (BB) 1980 এর দশকের প্রথম দিকে আর্থিক বিশ্লেষক ও ট্রেডার জন বলিঞ্জার কর্তৃক তৈরি হয়। এগুলো প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণের (TA) জন্য একটি উপকরণ হিসেবে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়। মূলত, বলিঞ্জার ব্যান্ডগুলো অসিলেটর পরিমাপক হিসেবে কাজ করে। এটি মার্কেটের উচ্চ বা নিম্ন অস্থিরতা এবং একই সাথে ওভারবট বা ওভারসোল্ড পরিস্থিতি নির্দেশ করে।

গড় মূল্যের আশেপাশে মূল্য কিভাবে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে সেটিকে তুলে ধরাই BB সূচকের পিছনের মূল ধারণা। আরও নির্দিষ্টভাবে বললে, এটি একটি আপার ব্যান্ড, একটি লোয়ার ব্যান্ড এবং একটি মিডল মুভিং অ্যাভারেজ লাইন (এটি মিডল ব্যান্ড নামেও পরিচিত) দ্বারা গঠিত। দুইদিকের দুটি ব্যান্ড মার্কেটের প্রাইস অ্যাকশনে প্রতিক্রিয়া প্রদর্শন করে, অস্থিরতা বেশি হলে প্রসারিত হয় (মিডল লাইন থেকে দূরে সরে যায়) এবং অস্থিরতা কম হলে সংকোচন করে (মিডল লাইনের দিকে চলে যায়)।

স্ট্যান্ডার্ড বলিঞ্জার ব্যান্ড সূত্র মিডল লাইনকে 20-দিন সিম্পল মুভিং অ্যাভারেজ (SMA) হিসেবে আর আপার ও লোয়ার ব্যান্ডগুলোকে SMA (যাকে স্ট্যান্ডার্ড বিচ্যুতি হিসেবে উল্লেখ করা হয়) সংশ্লিষ্ট মার্কেটের অস্থিরতার উপর ভিত্তি করে গণনা করা হয়। বলিঞ্জার ব্যান্ড সূচকের স্ট্যান্ডার্ড সেটিংস দেখতে এইরকম হবে:

  • মিডল লাইন: 20-দিনের সিম্পল মুভিং অ্যাভারেজ (SMA)

  • আপার ব্যান্ড: 20-দিনের SMA + (20-দিনের স্ট্যান্ডার্ড বিচ্যুতি x2)

  • লোয়ার ব্যান্ড: 20-দিনের SMA - (20-দিনের স্ট্যান্ডার্ড বিচ্যুতি x2)

সেটিংটি 20-দিনের সময়কালকে গ্রহণ করে এবং আপার ও লোয়ার ব্যান্ডগুলোকে মিডল লাইন থেকে দুটি স্ট্যান্ডার্ড বিচ্যুতিতে (x2) সেট করে। এই দুটি ব্যান্ডের মধ্যে কমপক্ষে 85% মূল্য ডেটা চলাচল হবে তা নিশ্চিত করার জন্য এটি করা হয়, তবে বিভিন্ন প্রয়োজন ও ট্রেডিং কৌশল অনুসারে সেটিংস সামঞ্জস্য করা যেতে পারে।


ট্রেডিংয়ে কিভাবে বলিঞ্জার ব্যান্ড ব্যবহার করবেন?

বলিঞ্জার ব্যান্ড প্রচলিত আর্থিক মার্কেটে ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হলেও এগুলো ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং পরিবেশের জন্যও ব্যবহার করা যেতে পারে। স্বাভাবিকভাবেই, BB সূচক ব্যবহার ও ব্যাখ্যা করার বিভিন্ন উপায় রয়েছে, তবে এটিকে একমাত্র উপকরণ হিসেবে ব্যবহার করা এড়িয়ে চলতে হবে এবং এটিকে ক্রয়/বিক্রয়ের সুযোগের সূচক হিসেবে বিবেচনা করা যাবে না। অন্যান্য প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণ সূচকগুলোর সাথে BB ব্যবহার করা বাঞ্ছনীয়। 

এটিকে মাথায় রেখে, চলুন দেখা যাক কিভাবে কেউ বলিঞ্জার ব্যান্ড সূচক দ্বারা প্রদত্ত ডেটার সম্ভাব্য ব্যাখ্যা করতে পারে।

মূল্য মুভিং অ্যাভারেজ থেকে উপরে উঠে আপার বলিঞ্জার ব্যান্ডকে ছাড়িয়ে গেলে মার্কেট সম্ভবত অতিপ্রসারিত হয়েছে (ওভারবট পরিস্থিতি) অনুমান করা যেতে পারে। অথবা, মূল্য যদি আপার ব্যান্ড একাধিকবার স্পর্শ করে তাহলে এটি উল্লেখযোগ্য রেজিস্ট্যান্স লেভেল নির্দেশ করতে পারে।

বিপরীতে, নির্দিষ্ট কোনো অ্যাসেটের মূল্য উল্লেখযোগ্যভাবে কমে গেলে এবং একাধিকবার লোয়ার ব্যান্ডকে অতিক্রম করলে বা স্পর্শ করলে মার্কেটে ওভারসোল্ড পরিস্থিতিতে রয়েছে বা কোনো শক্তিশালী সাপোর্ট লেভেল পেয়েছে।

তাই, ট্রেডাররা তাদের বিক্রয় বা কেনার টার্গেট নির্ধারণ করতে BB (অন্যান্য TA সূচকের সাথে) ব্যবহার করতে পারে। অথবা কেবল পূর্ববর্তী পয়েন্টগুলোর একটি সংক্ষিপ্ত বিবরণ পাওয়ার জন্য যেখানে মার্কেটটি ওভারবট এবং ওভারসোল্ড হয়েছে এমন শর্ত প্রদর্শন করে।

উপরন্তু, হাই বা লো অস্থিরতার মুহূর্তের পূর্বাভাস দেওয়ার চেষ্টা করার সময় বলিঞ্জার ব্যান্ডের প্রসারণ ও সংকোচন কার্যকর হতে পারে। অ্যাসেটের মূল্য অধিক অস্থির (সম্প্রসারণ) হলে ব্যান্ড মিডল লাইন থেকে দূরে সরে যেতে পারে অথবা মূল্য কম অস্থির (সংকোচন বা চাপ) সাথে সাথে মিডল লাইনের দিকে যেতে পারে।

সুতরাং, মার্কেটের অস্থিরতা বিশ্লেষণ করার ও আসন্ন গতিবিধির পূর্বাভাস দেওয়ার চেষ্টা করার উপায় হিসেবে বলিঞ্জার ব্যান্ডগুলো স্বল্পমেয়াদী ট্রেডিংয়ের জন্য অধিক উপযুক্ত। কিছু কিছু ট্রেডার অনুমান করেন যে ব্যান্ডগুলো অতিরিক্ত প্রসারিত হলে বর্তমান মার্কেটের প্রবণতা একত্রীকরণ পিরিয়ডের কাছাকাছি হতে পারে বা প্রবণতার রিভার্সাল হতে পারে। অথবা, ব্যান্ডগুলো খুব শক্ত হয়ে গেলে ট্রেডাররা ধরে নেন যে মার্কেটের মূল্য সম্ভবত কোনো প্রচন্ড ওঠানামার জন্য প্রস্তুত হচ্ছে।

মার্কেট মূল্য সাইডওয়ের দিকে সরে গেলে BB মাঝখানে সিম্পল মুভিং অ্যাভারেজ লাইনের দিকে চলে যেতে চায়। সাধারণত (তবে সবসময় নয়), মূল্যের ভয়ংকর ওঠানামা শুরু হবার আগে নিম্ন অস্থিরতা ও দৃঢ় বিচ্যুতি লেভেল আসে, যা অস্থিরতা বৃদ্ধি হবার সাথে সাথেই ঘটতে থাকে। 

লক্ষণীয় যে, বলিঞ্জার ব্যান্ড স্কুইজ নামে পরিচিত একটি ট্রেডিং কৌশল রয়েছে। এটি নিম্ন-অস্থিরতার অঞ্চলগুলো খুঁজে নিয়ে গঠিত যা BB সংকোচন দ্বারা তুলে ধরা হয়। স্কুইজ কৌশলটি নিরপেক্ষ এবং মার্কেটের অভিমুখ সম্পর্কে কোনো স্পষ্ট ধারণা দেয় না। ফলে, ট্রেডাররা সাধারণত এটিকে অন্যান্য TA পদ্ধতির সাথে একত্রিত করে, যেমন সাপোর্টরেজিস্ট্যান্সের লাইন।


বলিঞ্জার ব্যান্ড বনাম কেল্টনার চ্যানেল

SMA ও স্ট্যান্ডার্ড বিচ্যুতির উপর ভিত্তি করা বলিঞ্জার ব্যান্ডের বিপরীতে, কেল্টনার চ্যানেল (KC) সূচকের আধুনিক সংস্করণটি চ্যানেলের প্রস্থ 20-দিনের EMA এর কাছাকাছি সেট করতে অ্যাভারেজ ট্রু রেঞ্জ (ATR) ব্যবহার করে। এ কারণে কেল্টনার চ্যানেল সূত্রটি দেখতে নিম্নরূপ:

  • মিডল লাইন: 20-দিনের এক্সপোনেন্সিয়াল মুভিং অ্যাভারেজ (EMA)

  • আপার ব্যান্ড: 20-দিনের EMA + (10-দিনের ATR x2)

  • লোয়ার ব্যান্ড: 20-দিনের EMA - (10-দিনের ATR x2)

সাধারণত, কেল্টনার চ্যানেলগুলো বলিঞ্জার ব্যান্ডের চেয়ে টাইট হয়। তাই, কিছু কিছু ক্ষেত্রে, KC সূচকটি প্রবণতা পরিবর্তন ও ওভারবট/ওভারসোল্ড মার্কেটের পরিস্থিতি (আরো সুস্পষ্ট লক্ষণ) চিহ্নিত করার জন্য BB-এর চেয়ে অধিক উপযুক্ত হতে পারে। এছাড়াও, KC সাধারণত ওভারবট এবং ওভারসোল্ড সংশ্লিষ্ট সিগন্যাল BB-এর আগে প্রদান করে।

অন্যদিকে, বলিঞ্জার ব্যান্ডগুলো মার্কেটের অস্থিরতাকে আরও ভালভাবে উপস্থাপন করে কারণ KC-এর তুলনায় প্রসারণ ও সংকোচনের গতিবিধি অনেক বিস্তৃত ও স্পষ্ট। অধিকন্তু, এর প্রস্থ বড় এবং সে কারণে অতিক্রম করা কঠিন হওয়ায় কারণে স্ট্যান্ডার্ড বিচ্যুতি ব্যবহার করায় BB সূচকটির ভুল সংকেত প্রদানের সম্ভাবনা কম।

এই দুটোর মধ্যে, BB সূচকটি অধিক জনপ্রিয়। কিন্তু উভয় টুলই তাদের নিজ নিজ পদ্ধতিতে উপযোগী হতে পারে - বিশেষ করে স্বল্পমেয়াদী ট্রেডিং সেটআপের জন্য। এর বাইরে, অধিক নির্ভরযোগ্য সংকেত প্রদানের উপায় হিসেবে দুটিকে একসাথে ব্যবহার করা যেতে পারে।