স্পট মার্কেট কী এবং কিভাবে স্পট ট্রেডিং করতে হয়?
সুচিপত্র
ভূমিকা
স্পট মার্কেট কী?
স্পট ট্রেডিং কী?
এক্সচেঞ্জ বনাম ওভার-দ্য-কাউন্টার
স্পট মার্কেট ও ফিউচার মার্কেটের মধ্যে পার্থক্য কী?
স্পট ট্রেডিং ও মার্জিন ট্রেডিংয়ের মধ্যে পার্থক্য কী কী?
Binance-এ কিভাবে স্পট ট্রেড করবেন
স্পট মার্কেটের সুবিধা ও অসুবিধাসমূহ
শেষ কথা
স্পট মার্কেট কী এবং কিভাবে স্পট ট্রেডিং করতে হয়?
হোম
নিবন্ধ
স্পট মার্কেট কী এবং কিভাবে স্পট ট্রেডিং করতে হয়?

স্পট মার্কেট কী এবং কিভাবে স্পট ট্রেডিং করতে হয়?

প্রকাশিত হয়েছে Jul 21, 2021আপডেট হয়েছে Dec 28, 2022
10m

TL;DR

স্পট ট্রেডিংয়ে ক্রিপ্টোকারেন্সি, ফরেক্স, স্টক, বা বন্ডের মত আর্থিক উপকরণ ও অ্যাসেট সরাসরি ক্রয় বা বিক্রয় হয়। অ্যাসেট ডেলিভারি প্রায়শই তাৎক্ষণিক হয়। স্পট ট্রেডিং হয় স্পট মার্কেটে, যা হয় এক্সচেঞ্জ-ভিত্তিক বা ওভার-দ্য-কাউন্টার (সরাসরি ট্রেডারদের মধ্যে)। স্পট মার্কেটে ট্রেড করার সময় আপনি শুধুমাত্র আপনার মালিকানাধীন অ্যাসেট ব্যবহার করতে পারেন - কোনো লিভারেজ বা মার্জিন নেই।

ট্রেডিংকে সহজ করতে স্পট ট্রেডিংয়ের সেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জগুলো নিয়ন্ত্রক সংস্থার পরিপালন, নিরাপত্তা, হেফাজত এবং অন্যান্য নিয়ামকগুলো পরিচালনা করে। বিনিময়ে, এক্সচেঞ্জগুলো লেনদেন ফি নেয়। ডিসেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ একই ধরনের পরিষেবা প্রদান করে তবে ব্লকচেইন স্মার্ট কন্ট্রাক্টের মাধ্যমে।


ভূমিকা

স্পট ট্রেডিং বিনিয়োগ ও ট্রেড করার একটি সহজ উপায় প্রস্তাব করে। ক্রিপ্টো বিনিয়োগের ক্ষেত্রে, স্পট মার্কেটে কোনো স্পট লেনদেন আপনার প্রথম অভিজ্ঞতা হতে পারে, যেমন মার্কেট মূল্যে BNB ক্রয় এবং HODLing

ক্রিপ্টোকারেন্সি, শেয়ার, কমোডিটি, ফরেক্স এবং বন্ডসহ বিভিন্ন অ্যাসেট শ্রেণী জুড়ে স্পট মার্কেট বিদ্যমান। আপনি সম্ভবত আপনার ধারণার চেয়েও স্পট মার্কেট ও স্পট ট্রেডিংয়ের সাথে অধিক পরিচিত। জনপ্রিয় কিছু মার্কেট, যেমন NASDAQ বা NYSE (নিউ ইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জ) হল স্পট মার্কেট।


স্পট মার্কেট কী?

কোনো স্পট মার্কেট হল জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত একটি আর্থিক মার্কেট যা যেখানে তাৎক্ষণিকভাবে অ্যাসেট ট্রেড হয়। একজন ক্রেতা বিক্রেতার কাছ থেকে ফিয়াট বা বিনিময়ের অন্য মাধ্যম দিয়ে কোনো অ্যাসেট ক্রয় করেন। অ্যাসেটের ডেলিভারি প্রায়শই তাৎক্ষনিক হয়, তবে কী লেনদেন করা হচ্ছে এটি তার উপর নির্ভর করে।

স্পট মার্কেট ক্যাশ মার্কেট হিসেবেও পরিচিত কারণ ট্রেডারগণ অগ্রিম পেমেন্ট করেন। স্পট মার্কেট বিভিন্ন ধরণের হয় এবং এক্সচেঞ্জ নামে পরিচিত তৃতীয় পক্ষ সাধারণত ট্রেডিংকে সহজতর করে। আপনি ওভার-দ্য-কাউন্টার (OTC) ট্রেডে অন্যদের সাথে সরাসরি ট্রেড করতে পারেন। এই বিষয়ে আমরা পরে বিস্তারিত জানবো।


স্পট ট্রেডিং কী?

স্পট ট্রেডারগণ অ্যাসেট ক্রয় করে এবং সেগুলোর মূল্য বৃদ্ধি পাবে এই প্রত্যাশায় মার্কেটে লাভ করার চেষ্টা করেন। মূল্য বেড়ে গেলে তারা লাভের জন্য স্পট মার্কেটে তাদের অ্যাসেট বিক্রয় করতে পারেন। স্পট ট্রেডারগণও মার্কেট শর্টও করতে পারেন। এই প্রক্রিয়ায় আর্থিক অ্যাসেট বিক্রয় করা এবং মূল্য কমে গেলে পুনরায় আরো বেশি ক্রয় করা হয়।

কোনো অ্যাসেটের বর্তমান মার্কেট মূল্য স্পট মূল্য হিসেবে পরিচিত। একটি মার্কেট অর্ডার ব্যবহার করে কোনো এক্সচেঞ্জে আপনি উপলভ্য সেরা স্পট মূল্যে তাৎক্ষনিকভাবে আপনার হোল্ডিং ক্রয় বা বিক্রয় করতে পারেন। তবে আপনার অর্ডার কার্যকর হওয়ার সময় মার্কেট মূল্য পরিবর্তন হবে না এমন কোনো নিশ্চয়তা নেই। আপনি যে মূল্য চেয়েছেন সেই মূল্যে আপনার অর্ডার পূরণ করার মত যথেষ্ট পরিমাণ নাও থাকতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, আপনার অর্ডার যদি হয় স্পট মূল্যে 10 ETH এর জন্য, অথচ অফারে রয়েছে শুধুমাত্র 3টি, তাহলে আপনাকে আপনার অর্ডাররের বাকি অংশ ভিন্ন মূল্যে ETH দিয়ে পূরণ করতে হবে।

স্পট মূল্য রিয়েল-টাইমে আপডেট হয় এবং অর্ডার মিলে গেলে পরিবর্তন হয়। ওভার-দ্য-কাউন্টার স্পট ট্রেডিং ভিন্নভাবে কাজ করে। অর্ডার বুক ছাড়াই আপনি সরাসরি অন্য পক্ষ থেকে একটি নির্দিষ্ট পরিমাণ ও মূল্য নিশ্চিত করতে পারেন। 

অ্যাসেটের উপর নির্ভর করে, ডেলিভারি তাৎক্ষণিক বা সাধারণত T+2 দিনের মধ্যে হয়। T+2 মানে হল ট্রেডের তারিখের সাথে আরো দুই কার্য দিবস। প্রচলিতভবে, শেয়ার ও ইক্যুইটিগুলোর জন্য ফিজিক্যাল সনদের ট্রান্সফার প্রয়োজন হত। বৈদেশিক মুদ্রার মার্কেট পূর্বে নগদ অর্থ, তার বা জমার মাধ্যমে মুদ্রা ট্রান্সফার করতো। এখন ডিজিটালাইজড সিস্টেমের মাধ্যে ডেলিভারি প্রায় সাথে সাথেই হয়। তবে ক্রিপ্টো মার্কেটগুলো 24/7 পরিচালনা করে যা সাধারণত তাৎক্ষণিক লেনদেনের সুযোগ প্রদান করে। পিয়ার-টু-পিয়ার ট্রেডিং বা OTC অবশ্য ডেলিভারির জন্য বেশি সময় নিতে পারে।


এক্সচেঞ্জ বনাম ওভার-দ্য-কাউন্টার

স্পট ট্রেডিং শুধুমাত্র একটি জায়গায় সীমাবদ্ধ নয়। অধিকাংশ ব্যক্তিই এক্সচেঞ্জে স্পট ট্রেডিং করলেও আপনি তৃতীয় পক্ষ ছাড়া অন্যদের সাথে সরাসরি ট্রেড করতে পারেন। উল্লিখিত হিসেবে, এই বিক্রয় ও ক্রয় ওভার-দ্য-কাউন্টার ট্রেড হিসেবে পরিচিত। প্রতিটি স্পট মার্কেটের নিজস্ব পার্থক্য রয়েছে।

সেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ

এক্সচেঞ্জের দুটি রূপে রয়েছে: সেন্ট্রালাইজড ও ডিসেন্ট্রালাইজড। কোনো সেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ ক্রিপ্টোকারেন্সি, ফরেক্স এবং কমোডিটির মতো অ্যাসেটের ট্রেডিং পরিচালনা করে। মার্কেট অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে এক্সচেঞ্জ একটি মধ্যস্থতাকারী হিসেবে এবং ট্রেডকৃত অ্যাসেটের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে কাজ করে। কোনো সেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ ব্যবহার করতে, আপনি যে ফিয়াট বা ক্রিপ্টো ট্রেড করতে চান তা দিয়ে আপনার অ্যাকাউন্ট লোড করতে হবে।

কোনো গুরুত্বপূর্ণ সেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জকে লেনদেন সুষ্ঠভাবে সম্পন্ন হওয়া নিশ্চিত করতে হয়। অন্যান্য দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থার পরিপালন, KYC (আপনার গ্রাহককে জানুন), ন্যায্য মূল্য, নিরাপত্তা ও গ্রাহক সুরক্ষা। বিনিময়ে, লেনদেন, তালিকাভুক্তি করা ও অন্যান্য ট্রেডিং কার্যকলাপের উপর এক্সচেঞ্জ ফি চার্জ করে। এই কারণে, যথেষ্ট পরিমাণ ব্যবহারকারী ও ট্রেডিং ভলিউম থাকলে ঊর্ধ্বমুখী ও নিম্নমুখী উভয় মার্কেটেই এক্সচেঞ্জগুলো লাভ করতে পারে।

ডিসেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ

কোনো ডিসেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ (DEX) হল অন্য আরেক ধরনের এক্সচেঞ্জ যা সাধারণত ক্রিপ্টোকারেন্সির সাথে দেখা যায়। একটি DEX, সেন্ট্রালাইজড একটি এক্সচেঞ্জের অনুরূপ অনেকগুলো মৌলিক পরিষেবা অফার করে। তবে DEX ক্রয়-বিক্রয়ের অর্ডার ম্যাচ করে ব্লকচেইন প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে, DEX ব্যবহারকারীদের কোনো অ্যাকাউন্ট তৈরি করতে হয় না এবং DEX-এ অ্যাসেট ট্রান্সফার করার প্রয়োজন ছাড়াই সরাসরি একে অপরের সাথে ট্রেড করতে পারে।

স্মার্ট কন্ট্রাক্টের মাধ্যমে ট্রেডিং সরাসরি ট্রেডারদের ওয়ালেট থেকে সম্পাদিত হয়। এগুলো একটি ব্লকচেইনের কোডের স্ব-নির্বাহী অংশ। অনেক ব্যবহারকারী DEX এর অভিজ্ঞতা পছন্দ করেন কারণ এটি সাধারণ বিনিময়ের চেয়ে অধিক গোপনীয়তা ও স্বাধীনতা প্রদান করে। তবে এটির জন্য কিছু হারাতেও হয়। উদাহরণস্বরূপ, আপনার যদি কোনো সমস্যা থাকে তাহলে KYC ও গ্রাহক সহায়তার অভাব সমস্যা তৈরি করতে পারে।

কিছু DEX একটি অর্ডার বুক মডেল ব্যবহার করে, যেমন Binance DEX। আরো সাম্প্রতিক অগ্রগতি হল প্যানকেক সোয়াপ ও ইউনিসোয়াপের মতো অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) মডেল। AMM স্মার্ট কন্ট্রাক্ট ব্যবহার করে তবে মূল্য নির্ধারণের জন্য একটি ভিন্ন মডেল প্রয়োগ করে। টোকেন সোয়াপ করতে ক্রেতারা তারল্য পুলে তাদের ফান্ড ব্যবহার করে। পুলের ফান্ড প্রদান করা তারল্য সরবরাহকারীরা পুল ব্যবহার করা সবার জন্য লেনদেন ফি চার্জ করে।

ওভার-দ্য-কাউন্টার

আরেকদিনে, আমাদের রয়েছে ওভার-দ্য-কাউন্টার ট্রেডিং যা কখনও কখনও অফ-এক্সচেঞ্জ ট্রেডিং নামে পরিচিত। আর্থিক অ্যাসেট ও সিকিউরিটিজ সরাসরি ব্রোকার, ট্রেডার ও ডিলারদের মধ্যে লেনদেন করা হয়। ফোন ও ইন্সট্যান্ট মেসেজিং সহ ট্রেড সম্পন্ন করতে OTC মার্কেটে স্পট ট্রেডিং একাধিক যোগাযোগ পদ্ধতি ব্যবহার করে।

কোনো অর্ডার বুক ব্যবহার করার প্রয়োজন না হওয়ায় OTC ট্রেডের কিছু সুবিধা রয়েছে। আপনি যদি স্মল-ক্যাপ কয়েনের মত লো তারল্য থাকা কোনো অ্যাসেট ট্রেড করেন তাহলে বড় কোনো অর্ডার স্লিপেজ এর কারণ হতে পারে। যে মূল্যে চাওয়া হয় সেই মূল্যে এক্সচেঞ্জ প্রায়শই আপনার অর্ডারটি সম্পূর্ণরূপে পূরণ করতে পারে না, তাই অর্ডারটি সম্পন্ন করতে আপনাকে অধিক মূল্য নিতে হবে। এই কারণে, বড় OTC ট্রেডগুলো প্রায়শই ভালো মূল্য পায়। 

মনে রাখবেন যে, অর্ডার খুব বড় হলে এমনকি BTC এর মতো তরল অ্যাসেটেও স্লিপেজ হতে পারে। ফলে বড় BTC অর্ডারও OTC ট্রেড থেকে উপকৃত হতে পারে। 


স্পট মার্কেট ও ফিউচার মার্কেটের মধ্যে পার্থক্য কী?

আমরা ইতোমধ্যে উল্লেখ করেছি যে স্পট মার্কেটগুলো প্রায় তাৎক্ষনিক ডেলিভারিসহ বিলম্বহীন লেনদেন করে। অন্যদিকে, ফিউচার মার্কেটে ভবিষ্যতের তারিখে পরিশোধ করা কন্ট্রাক্ট রয়েছে। কোনো ক্রেতা ও বিক্রেতা ভবিষ্যতে নির্দিষ্ট কোনো মূল্যের কোনো নির্দিষ্ট পরিমাণ পণ্য ট্রেড করতে সম্মত হন। নিষ্পত্তির তারিখে কন্ট্রাক্ট পূর্ণকাল প্রাপ্ত হলে, ক্রেতা ও বিক্রেতা সাধারণত অ্যাসেট প্রদানের পরিবর্তে একটি ক্যাশ নিষ্পত্তিতে সম্মত হন।

ফিউচার সম্পর্কিত আরো তথ্যের জন্য, ফরোয়ার্ড ও ফিউচার কন্ট্রাক্ট কী দেখুন।


স্পট ট্রেডিং ও মার্জিন ট্রেডিংয়ের মধ্যে পার্থক্য কী কী?

কোনো কোনো স্পট মার্কেটে মার্জিন ট্রেডিং পাওয়া গেলেও এটি স্পট ট্রেডিংয়ের মতো নয়। যেমনটি আমরা আগে উল্লেখ করেছি, স্পট ট্রেডিংয়ের জন্য আপনাকে অবিলম্বে অ্যাসেট সম্পূর্ণরূপে ক্রয় করতে হবে এবং ডেলিভারি নিতে হবে। বিপরীতে, মার্জিন ট্রেডিং আপনাকে তৃতীয় পক্ষের কাছ থেকে সুদসহ ফান্ড ধার করার সুযোগ প্রদান করে, যা আপনাকে বড় পজিশনে প্রবেশ করার সুযোগ দেয়। সে কারণে, ধার গ্রহণ কোনো মার্জিন ট্রেডারকে আরো উল্লেখযোগ্য লাভের সম্ভাবনা প্রদান করে। তবে, এটি সম্ভাব্য ক্ষতিও বাড়িয়ে দেয়, তাই আপনার সকল প্রারম্ভিক বিনিয়োগ যাতে না হারায় সে বিষয়ে আপনাকে সতর্ক হতে হবে।


Binance-এ কিভাবে স্পট ট্রেড করবেন

আপনি একবার Binance অ্যাকাউন্টে সাইন আপ করলে Binance-এ স্পট ট্রেডিং একটি সহজ প্রক্রিয়া। আসুন Binance এর এক্সচেঞ্জ ভিউ এবং কিভাবে স্পট ট্রেড করা যায় তা দেখি। আপনি [ট্রেড] এর উপর হোভার করে এবং Binance হোমপেজ-এ [স্পট]-এ ক্লিক করে স্পট ট্রেডিং প্ল্যাটফর্মটি খুঁজে পেতে পারেন।


আপনি এখন ট্রেডিং ভিউ দেখতে পাবেন, যেটিতে আগ্রহের কয়েকটি ভিন্ন সেকশন রয়েছে।

1. একদম উপরে আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেডিং জোড়া ও অন্যান্য মার্কেটের তথ্য, যেমন দৈনিক মূল্য পরিবর্তন ও পরিমাণ দেখতে পারেন।

2. অর্ডার বুক, মূল্য দিয়ে সাজানো একটি অ্যাসেটের ওপেন বাই-সেলের সকল অর্ডার তালিকাভুক্ত করে। সবুজ অর্ডারগুলো হল ক্রয় অর্ডার এবং লালগুলো হল বিক্রয় অর্ডার। কোনো অ্যাসেট কেনার জন্য আপনি যখন কোনো মার্কেট অর্ডার করেন, তখন আপনি অফারের সর্বনিম্ন মূল্যটি নেন। আপনার অর্ডারটি পূরণ করার জন্য আরো পরিমাণের প্রয়োজন হলে এটি পরবর্তী সর্বনিম্ন আস্ক প্রাইসে চলে যাবে।

3. এখানে আপনি কাস্টমাইজযোগ্য ঐতিহাসিক মূল্যের ডেটাসহ চার্ট ভিউ দেখতে পাবেন। উইন্ডোতে অন্তর্নির্মিত (ইন-বিল্ট) রয়েছে TradingView যা আপনাকে ব্যবহার করার জন্য প্রযুক্তিগত বিশ্লেষণের বিভিন্ন ধরনের ট্যুলস প্রদান করে।

4. উপরের ডানদিকে, আপনি বিভিন্ন ট্রেডিং জোড়া অনুসন্ধান করতে পারবেন। এখানে, আপনি যে ক্রিপ্টোকারেন্সি জোড়াটি স্পট মার্কেটে ট্রেড করতে চান তা বেছে নিতে পারেন এবং ছোট তারাগুলোতে ক্লিক করে আপনার প্রিয় জোড়াগুলোকে বুকমার্ক করতে পারেন। মনে রাখবেন যে, আপনাকে ফিয়াট দিয়েই ক্রিপ্টোকারেন্সি কিনতে হবে তা নয়। আপনার কাছে যদি অন্য ক্রিপ্টোকারেন্সি থাকে তাহলে আপনি সেগুলোকে স্পট মার্কেটে অন্যান্য কয়েন ও টোকেনের সাথে বিনিময় করতে পারেন।

5. এই সেকশনে আপনি আপনার ক্রয় বা বিক্রয় অর্ডার তৈরি করবেন। আপনি দেখতে পাচ্ছেন যে এটি বর্তমানে [স্পট] সেকশনে রয়েছে। এর নীচে, আপনি [সীমা], [মার্কেট] ও [স্টপের সীমা] অর্ডারগুলোর মধ্য থেকে বেছে নিতে পারেন।

চলুন দেখে নেওয়া যাক সবচেয়ে সহজবোধ্য স্পট ট্রেড যা আপনি করতে পারেন: একটি মার্কেট অর্ডার। আমাদের উদাহরণে, আপনি $1,000 (BUSD) মূল্যের বিটকয়েন (BTC) কিনতে চান। এটি করার জন্য আপনাকে যা করতে হবে তা হল [মোট] ঘরে 1,000 ইনপুট দিয়ে [BTC কিনুন]-এ ক্লিক করতে হবে। বিক্রেতার কাছে এক্সচেঞ্জ তাৎক্ষনিকভাবে BUSD বিতরণ করবে এবং আপনি $1,000 (BUSD) মূল্যের BTC পাবেন।


স্পট মার্কেটের সুবিধা ও অসুবিধাসমূহ

সকল ধরণের ট্রেডিং ও কৌশলের সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে। এগুলোর সম্পর্কে জানা আপনাকে ঝুঁকি কমাতে ও আরো আত্মবিশ্বাসের সাথে ট্রেড করতে সাহায্য করবে। স্পট ট্রেডিং হল সবচেয়ে সহজগুলোর মধ্যে একটি, কিন্তু এটিরও শক্তিশালী ও দুর্বল দিক রয়েছে।

স্পট মার্কেটের সুবিধাসমূহ

1. মূল্য স্বচ্ছ এবং শুধুমাত্র মার্কেটের সরবরাহ ও চাহিদার উপর নির্ভর করে। এই দিকটির সাথে ফিউচার মার্কেটের বৈপরীত্য রয়েছে, যেটিতে প্রায়ই একাধিক রেফারেন্স মূল্য থাকে। উদাহরণস্বরূপ, Binance ফিউচার মার্কেটে মার্ক মূল্য ফান্ডিং রেট, মূল্য সূচক এবং মুভিং এভারেজ (MA) বেসিসসহ অন্যান্য তথ্য থেকে প্রাপ্ত হয়। প্রচলিত কিছু মার্কেটে, মার্ক মূল্য সুদের হার দ্বারা প্রভাবিত হতে পারে।

2. সহজ নিয়ম, পুরস্কার ও ঝুঁকির কারণে স্পট ট্রেডিং-এ অংশ নেয়া সহজ। BNB-তে স্পট মার্কেটে আপনি $500 বিনিয়োগ করলে আপনার প্রবেশ ও বর্তমান মূল্যের উপর ভিত্তি করে সহজেই আপনি আপনার ঝুঁকি গণনা করতে পারবেন।

3. আপনি "সেট করে ভুলে যেতে" পারেন। ডেরিভেটিভস এবং মার্জিন ট্রেডিংয়ের বিপরীতে, স্পট ট্রেডিংয়ের ক্ষেত্রে আপনাকে তরলীকৃত হওয়া বা মার্জিন কল পাওয়ার বিষয়ে চিন্তা করতে হবে না। আপনি যখনই চাইবেন তখনই কোনো ট্রেডে প্রবেশ বা ট্রেড থেকে প্রস্থান করতে পারবেন। স্বল্পমেয়াদী ট্রেড করতে না চাইলে আপনার বিনিয়োগ বার বার পরীক্ষাও করতে থাকতে হবে না।

স্পট মার্কেটের অসুবিধাসমূহ

1. আপনি কী ট্রেড করছেন তার উপর নির্ভর করে স্পট মার্কেটগুলো আপনার কাছে এমন অ্যাসেট রাখতে পারে যা রাখা অসুবিধাজনক। পণ্য সম্ভবত সেরা উদাহরণ হতে পারে। আপনি যদি অপরিশোধিত তেল ক্রয় করেন তাহলে আপনাকে অ্যাসেটের ফিজিক্যাল ডেলিভারি নিতে হবে। ক্রিপ্টোকারেন্সির ক্ষেত্রে, টোকেন ও কয়েন রাখা আপনাকে সেগুলোর সুরক্ষা ও নিরাপত্তার দায়িত্ব অর্পণ করে। ফিউচার ডেরিভেটিভস ট্রেড করার মাধ্যমেও আপনি এই অ্যাসেটগুলোর সংস্পর্শে আসতে পারেন তবে ক্যাশ দিয়ে নিষ্পত্তি করতে পারবেন।

2. নির্দিষ্ট কিছু অ্যাসেট, ব্যক্তি ও কোম্পানির ক্ষেত্রে, স্থিতিশীলতা মূল্যবান। উদাহরণস্বরূপ, বিদেশে কাজ করতে চায় এমন কোনো কোম্পানির ফরেক্স মার্কেটে বৈদেশিক মুদ্রার অ্যাক্সেস প্রয়োজন। স্পট মার্কেটের উপর তারা নির্ভর করলে ব্যয় পরিকল্পনা ও আয় খুব অস্থিতিশীল হবে। 

3. ফিউচার বা মার্জিন ট্রেডিংয়ের তুলনায় স্পট ট্রেডিংয়ে সম্ভাব্য লাভ অনেক কম। বড় পজিশনে ট্রেড করতে আপনি একই পরিমাণ মূলধন ব্যবহার লিভারেজ করতে পারেন।


শেষ কথা

স্পট মার্কেটে স্পট ট্রেডিং হল মানুষের ট্রেড করার সবচেয়ে প্রচলিত পদ্ধতি, বিশেষ করে নতুনদের জন্য। এটি যদিও সহজবোধ্য, তবে এর সুবিধা, অসুবিধা এবং সম্ভাব্য কৌশল সম্পর্কে বাড়তি জ্ঞান থাকা সবসময়ই ভালো। প্রাথমিক বিষয়গুলো ছাড়াও, আপনার জ্ঞানকে যুক্তিসঙ্গত প্রযুক্তিগতমৌলিক এবং অনুভূতি বিশ্লেষণের সাথে একত্রিত করার কথা বিবেচনা করা উচিত।