অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কী?
সুচিপত্র
ভূমিকা
অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কী?
অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কিভাবে কাজ করে?
তারল্য পুল কী?
সাময়িক লোকসান কী?
শেষ কথা
অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কী?
হোম
নিবন্ধ
অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কী?

অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কী?

প্রকাশিত হয়েছে Oct 8, 2020আপডেট হয়েছে Dec 28, 2022
6m

TL;DR

অটোমেটেড মার্কেট মেকারকে আপনি একটি রোবট হিসাবে ভাবতে পারেন যেটি সর্বদা আপনাকে দুটি অ্যাসেটের মধ্যে একটির মূল্য উদ্ধৃত করতে ইচ্ছুক থাকে। কেউ কেউ Uniswap-এর মতো একটি সাধারণ সূত্র ব্যবহার করেন, যখন কার্ভ, ব্যালেন্সার এবং অন্যরা আরো জটিল ফর্মুলা ব্যবহার করে থাকেন।

AMM ব্যবহার করে আপনি যে শুধু আস্থার আবশ্যকতা ছাড়া ট্রেড করতে পারবেন তা-ই নয়, বরং আপনি একটি তারল্য পুলে তারল্য প্রদানের মাধ্যমে নিজেই হাউজ হয়ে উঠতে পারবেন। এটি মূলত যে কাউকে কোনো একটি এক্সচেঞ্জে মার্কেট মেকার হওয়ার এবং তারল্য প্রদানের বিনিময়ে ফি উপার্জন করার সুযোগ দেয়।

AMM-গুলো DeFi স্পেসে তাদের নিশ তৈরি করে নিয়েছে কারণ সেগুলো ব্যবহার করা খুবই সহজ। এভাবে মার্কেট মেকিংকে বিকেন্দ্রীকরণ করাই ক্রিপ্টোর অন্তর্নিহিত দৃষ্টিভঙ্গি।


ভূমিকা

ডিসেন্ট্রালাইজড ফাইনান্স (DeFi) নিয়ে ইথেরিয়াম এবং Binance স্মার্ট চেইনের মতো অন্যান্য স্মার্ট কন্ট্রাক্ট প্ল্যাটফর্মগুলোতে বিপুল আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। ইল্ড ফার্মিং টোকেন বিতরণের একটি জনপ্রিয় উপায় হয়ে উঠেছে, ইথেরিয়ামে টোকেনাইজড বিটিসি বাড়ছে এবং ফ্ল্যাশ লোন এর পরিমাণ বাড়ছে।

ইতোমধ্যে, Uniswap-এর মতো অটোমেটেড মার্কেট মেকার প্রোটোকগুলোতে নিয়মিতভাবে প্রতিযোগিতামূলক পরিমাণ, উচ্চ তারল্য এবং ক্রমবর্ধমান ব্যবহারকারীর সংখ্যা দেখা যাচ্ছে।

কিন্তু এই এক্সচেঞ্জ কিভাবে কাজ করে? সর্বশেষ ফুড কয়েনের জন্য মার্কেট সেট আপ করা এত দ্রুত এবং সহজ কেন? AMM কি সত্যিই প্রথাগত অর্ডার বুক এক্সচেঞ্জের সাথে প্রতিযোগিতা করতে পারে? চলুন দেখা যাক।


অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কী?

অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) হলো এমন এক ধরনের ডিসেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ (DEX) প্রোটোকল যা অ্যাসেটের মূল্য নির্ণয়ের জন্য গাণিতিক সূত্রের উপর নির্ভর করে। প্রথাগত এক্সচেঞ্জের মতো অর্ডার বুক ব্যবহার করার পরিবর্তে, মূল্য নির্ধারণের অ্যালগরিদম অনুযায়ী অ্যাসেটের মূল্য নির্ধারণ করা হয়।

এই সূত্র প্রতিটি প্রোটোকলের সাথে পরিবর্তিত হতে পারে। উদাহরণস্বরূপ, Uniswap ব্যবহার করে x * y = k, যেখানে x হলো তারল্য পুলে একটি টোকেনের পরিমাণ এবং y হলো অন্যটির পরিমাণ। এই সূত্রে, k হলো একটি নির্দিষ্ট ধ্রুবক, যার অর্থ পুলের মোট তারল্য সবসময় একই থাকতে হবে। অন্যান্য AMM-গুলো তাদের উদ্দিষ্ট নির্দিষ্ট ব্যবহারের ক্ষেত্রে অন্যান্য সূত্র ব্যবহার করবে। তবে তাদের সবার মধ্যে মিল হলো যে তারা অ্যালগরিদমিকভাবে মূল্য নির্ধারণ করে। এই মুহূর্তে এটিকে যদিও একটু বিভ্রান্তিকর মনে হয়, চিন্তা করবেন না; আশা করি, শেষ পর্যন্ত এর সবকিছুর যোগসূত্র খুঁজে পাবেন। 

প্রথাগত মার্কেট মেকিং সাধারণত বিশাল সংস্থান এবং জটিল কৌশল সহ কোম্পানিগুলোর বেলায় কাজ করে। মার্কেট মেকাররা আপনাকে Binance-এর মতো অর্ডার বুক এক্সচেঞ্জে একটি ভাল মূল্য এবং কঠোর রকমের বিড-আস্কের মধ্যে ব্যবধান পেতে সহায়তা করে। অটোমেটেড মার্কেট মেকাররা এই প্রক্রিয়াটিকে বিকেন্দ্রীকরণ করে এবং মূলত যে কাউকে ব্লকচেইনে মার্কেট মেক করার সুযোগ দেয়। তারা এটি ঠিক কিভাবে করতে পারে? চলুন পড়ে দেখা যাক।


অটোমেটেড মার্কেট মেকার (AMM) কিভাবে কাজ করে?

AMM একটি অর্ডার বুক এক্সচেঞ্জের মতোই কাজ করে যেখানে ট্রেডিং জোড়া রয়েছে – উদাহরণস্বরূপ, ETH/DAI। তবে, ট্রেড করার জন্য অপর দিকে আপনার অপরপক্ষ (অন্য ট্রেডার) থাকার দরকার নেই। পরিবর্তে, আপনি একটি স্মার্ট কন্ট্রাক্টের সাথে যোগাযোগ করেন যা আপনার জন্য মার্কেটর "তৈরি করে"।

Binance DEX-এর মতো একটি ডিসেন্ট্রালাইজড এক্সচেঞ্জ, ব্যবহারকারীর ওয়ালেটগুলোর মধ্যে সরাসরি ট্রেড হয়। আপনি যদি BNB-এর জন্য Binance DEX-এ BNB বিক্রি করেন, তাহলে ট্রেডের অন্য দিকে অন্য কেউ তাদের BUSD দিয়ে BNB কিনছেন। আমরা একে পিয়ার-টু-পিয়ার (P2P) লেনদেন বলতে পারি। 

বিপরীত পক্ষে, আপনি AMM-গুলোকে পিয়ার-টু-কন্ট্রাক্ট (P2C) হিসেবে ভাবতে পারেন। প্রথাগত অর্থে প্রতিপক্ষের কোনো প্রয়োজন নেই, কারণ ব্যবহারকারী এবং কন্ট্রাক্টের মধ্যে লেনদেন হয়। যেহেতু কোনো অর্ডার বুক নেই, তাই কোনো AMM-তে কোনো অর্ডারের ধরন নেই। আপনি যে অ্যাসেট ক্রয় বা বিক্রয় করতে চান তার জন্য আপনি কী মূল্য পাবেন তা বরং একটি সূত্র দ্বারা নির্ধারিত হয়। যদিও এটি লক্ষণীয় যে ভবিষ্যতের কিছু AMM ডিজাইন এই সীমাবদ্ধতাকে প্রতিহত করতে পারে।

সুতরাং প্রতিপক্ষের কোনো প্রয়োজন নেই, কিন্তু তারপরও কাউকে না কাউকে তো মার্কেট তৈরি করতে হবে, তাই না? সঠিক। এরপরও স্মার্ট কন্ট্রাক্টের তারল্য ব্যবহারকারীদের দ্বারা সরবরাহ করতে হবে যাদেরকে তারল্য সরবরাহকারী (LPs) বলা হয়।


তারল্য পুল কী?

তারল্য পুল কী


তারল্য সরবরাহকারী (LP) তারল্য পুলে ফান্ড যোগ করে। আপনি একটি তারল্য পুলকে ফান্ডের একটি বড় স্তূপ হিসাবে ভাবতে পারেন যার বিপরীতে ট্রেডাররা ট্রেড করতে পারেন। প্রোটোকলের তারল্য প্রদানের বিনিময়ে, LPs তাদের পুলে হওয়া ট্রেড থেকে ফি আদায় করে। Uniswap এর ক্ষেত্রে, LPs দুটি টোকেনের সমতুল্য মূল্য জমা করে – উদাহরণস্বরূপ, 50% ETH এবং 50% DAI ETH/DAI পুলে।

দেখুন, তাহলে কি কেউ মার্কেট মেকার হতে পারবে? আসলেই! তারল্য পুলে ফান্ড যোগ করা বেশ সহজ। পুরস্কারসমূহ প্রোটোকল দ্বারা নির্ধারিত হয়। উদাহরণস্বরূপ, Uniswap v2 ট্রেডারদের 0.3% চার্জ করে যা সরাসরি LP-তে যায়। অন্যান্য প্ল্যাটফর্ম বা ফর্কগুলো তাদের পুলে আরো তারল্য প্রদানকারীদের আকৃষ্ট করতে কম চার্জ করতে পারে।

তারল্য আকর্ষণ গুরুত্বপূর্ণ কেন? AMM-এর কাজের পদ্ধতির কারণে, পুলে যত বেশি তারল্য থাকবে, বড় অর্ডারগুলো তত কম স্লিপেজ হবে। যা আবার, পরিবর্তে, প্ল্যাটফর্মে আরো পরিমাণ আকর্ষণ করতে পারে, এবং এরকম অনেককিছু ঘটতে পারে।

স্লিপেজ সমস্যাগুলো বিভিন্ন AMM ডিজাইনের সাথে পরিবর্তিত হবে, তবে এটি অবশ্যই মনে রাখতে হবে। মনে রাখবেন, মূল্য একটি অ্যালগরিদম দ্বারা নির্ধারিত হয়। একটি সরলীকৃত উপায়ে, একটি ট্রেডের পরে তারল্য পুলে টোকেনগুলোর মধ্যে অনুপাত কতটা পরিবর্তিত হয় তার দ্বারা এটি নির্ধারিত হয়। যদি অনুপাতটি বিস্তৃত মার্জিনে পরিবর্তিত হয়, তাহলে মনে করা যায় প্রচুর পরিমাণে স্লিপেজ হতে চলেছে।

এটিকে আরো কিছুটা এগিয়ে নিতে, ধরা যাক আপনি Uniswap-এ ETH/DAI পুলের সমস্ত ETH কিনতে চেয়েছিলেন। ঠিক আছে, কিন্তু আপনি তা করতে পারেননি! প্রতিটি অতিরিক্ত ইথারের জন্য আপনাকে দ্রুতগতিতে বেশির চেয়েও বেশি প্রিমিয়াম দিতে হবে, কিন্তু তারপরও পুল থেকে এর সবটা কিনতে পারবেন না। কেন? x * y = k সূত্রের কারণে। যদি x বা শূন্য হয়, তাহলে এর অর্থ দাঁড়ায় পুলে শূন্য ETH বা DAI আছে, তাহলে সমীকরণটির আর কোনো মানে হয় না।

কিন্তু AMM এবং তারল্য পুল সম্পর্কে এখানেই গল্পের শেষ নয়। AAM-কে তারল্য প্রদান করার সময় আপনাকে অন্য বিষয় মনে রাখতে হবে – সাময়িক লোকসানের কথা।


সাময়িক লোকসান কী?

সাময়িক লোকসান ঘটে যখন আপনি পুলে জমা পর আপনার টোকেনগুলোর মূল্য অনুপাত পরিবর্তিত হয়। পরিবর্তন যত বেশি হবে, সাময়িক লোকসান তত বেশি হবে। এই কারণেই AAM-গুলো সেই টোকেন জোড়ার সাথে সবচেয়ে ভাল কাজ করে যার মান একই রকম, যেমন স্টেবলকয়েন বা মোড়ানো টোকেন। যদি জোড়ার মধ্যে মূল্য অনুপাত তুলনামূলকভাবে ছোট পরিসরে থাকে, তাহলে সাময়িক লোকসানও অল্প হবে।

অন্যদিকে, যদি অনুপাত অনেক পরিবর্তিত হয়, তাহলে তারল্য প্রদানকারীদের পক্ষে কোনো পুলে ফান্ড যোগ করার পরিবর্তে টোকেনগুলো ধরে রাখাই ভালো হতে পারে। তা সত্ত্বেও, ETH/DAI-এর মত Uniswap পুল যেগুলো সাময়িক লোকসানের সম্মুখীন হয়, সেগুলো যে ট্রেডিং ফি জমা করে সেটির জন্য লাভজনক হয়ে দাঁড়ায়।

যা বলা হলো তাতে, এই ঘটনাটির নাম সাময়িক লোকসান দেওয়ার খুব একটা ভালো কিছু নয়। "সাময়িক" থেকে অনুমান করা হয় যে, যদি অ্যাসেটগুলো সেই মূল্যে ফিরে যায় যেখানে মূলত সেগুলোকে জমা করা হয়েছিল, তাহলে লোকসান কমে আসবে। তবে, আপনি যদি আপনার ফান্ডগুলো জমা করার সময় থেকে ভিন্ন মূল্য অনুপাতে উত্তোলন করেন, তাহলে ক্ষতি অনেক স্থায়ী হয়। কিছু ক্ষেত্রে, ট্রেডিং ফি ক্ষতি কমাতে পারে, তবে তারপরও ঝুঁকির কথা মাথায় রাখাটা গুরুত্বপূর্ণ।

একটি AMM-এ ফান্ড জমা করার সময় সতর্কতা অবলম্বন করুন এবং নিশ্চিত করুন যে আপনি সাময়িক লোকসানের প্রভাব বুঝতে পেরেছেন। আপনি যদি সাময়িক লোকসানের একটি উন্নত ওভারভিউ পেতে চান তবে এ বিষয়ে পিনটেলের নিবন্ধটি পড়ুন।


➟ ক্রিপ্টোকারেন্সিতে শুরু করতে চাইছেন? Binance-এ বিটকয়েন ক্রয় করুন!


শেষ কথা

DeFi স্পেসের একটি প্রধান বিষয় হলো অটোমেটেড মার্কেট মেকার্স। সেটি মূলত যে কাউকে নির্বিঘ্নে এবং দক্ষতার সাথে মার্কেট মেক করতে সক্ষম করে। অর্ডার বুক এক্সচেঞ্জের তুলনায় তাদের সীমাবদ্ধতা থাকলেও, ক্রিপ্টোতে তারা যে সামগ্রিক উদ্ভাবনী ক্ষমতা দেখায় তা অমূল্য।

AMM-গুলো এখনও প্রাথমিক অবস্থায় রয়েছে। আজকে আমরা Uniswap, Curve এবং PancakeSwap-এর মতো যে AMM-গুলোকে চিনি এবং ব্যবহার করি সেগুলো দেখতে সুন্দর হলেও বৈশিষ্ট্যের দিক থেকে বেশ সীমিত। ভবিষ্যতে সম্ভবত আরো অনেক উদ্ভাবনী AMM ডিজাইন আসবে। এটি প্রতিটি DeFi ব্যবহারকারীর জন্য কম ফি, কম বিরোধ এবং শেষ পর্যন্ত আরো ভাল তারল্যের দিকে নিয়ে যাবে।