কিভাবে একটি সুষম ভারসাম্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও তৈরি করবেন
সুচিপত্র
ভূমিকা
ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও কী?
অ্যাসেট বরাদ্দ ও বৈচিত্র্য কী?
কেন্দ্রীভূত বনাম বৈচিত্র্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও 
বিভিন্ন ধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সি
আর্থিক ক্রিপ্টো পণ্য
একটি যথাযথ-ভারসাম্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও কিভাবে তৈরি করবেন
ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও ট্র্যাকার
শেষ কথা
কিভাবে একটি সুষম ভারসাম্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও তৈরি করবেন
হোম
নিবন্ধ
কিভাবে একটি সুষম ভারসাম্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও তৈরি করবেন

কিভাবে একটি সুষম ভারসাম্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও তৈরি করবেন

প্রকাশিত হয়েছে Jul 12, 2021আপডেট হয়েছে Nov 10, 2022
9m

TL;DR

কোনো ক্রিপ্টো পোর্টফোলিওর ভারসাম্য রক্ষা রাখা একটি প্রচলিত পোর্টফোলিও ভারসাম্য রক্ষা থেকে ভিন্ন কিছু নয়। আপনি সহজেই আপনার প্রোফাইল ও বিনিয়োগ কৌশল অনুযায়ী আপনার সামগ্রিক ঝুঁকি কমাতে পারেন। শুরু করতে যা লাগে তা হল বিভিন্ন ক্রিপ্টোকারেন্সির মধ্যে আপনার বিনিয়োগকে বৈচিত্র্যময় করা।

কী পরিমাণে আপনার বৈচিত্র্য আনা উচিৎ সেটি বিতর্কের বিষয় কারণ উভয় পক্ষেরই সুবিধা ও অসুবিধা রয়েছে। তবে, এটি সর্বসম্মতভাবে গৃহীত যে কিছু কিছু বৈচিত্র্য উপকারী। আপনি বিভিন্ন ক্রিপ্টো অ্যাসেট (স্ট্যাবলকয়েনসহ) ধরে রেখে ও নিয়মিত আপনার অ্যাসেট বরাদ্দের ভারসাম্য বজায় রাখার মাধ্যমে আপনার বিনিয়োগের ঝুঁকি কমাতে পারেন।

আপনার পোর্টফোলিও পরিচালনা সহজ করতে, আপনি কোনো তৃতীয় পক্ষের পোর্টফোলিও ট্র্যাকার ব্যবহার করতে পারেন বা স্প্রেডশিটে আপনার লেনদেন ম্যানুয়ালি রেকর্ড করতে পারেন। কিছু কিছু ট্র্যাকার আপনার ব্যক্তিগত ওয়ালেট ও ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জের সাথে লিংকে করা যেতে পারে যা প্রক্রিয়াটিকে আরো সহজ করে তোলে।


ভূমিকা

ক্রিপ্টো বিনিয়োগ শুরু করা আপনার প্রথম বিটকয়েন (BTC), ইথের (ETH) বা অন্য যেকোনো ক্রিপ্টোকারেন্সি কেনার মতোই সহজ। কিছু কিছু বিনিয়োগকারী সবচেয়ে বড় ক্রিপ্টোকারেন্সি কিনতে ও ধরে রাখতে পছন্দ করে আর অন্যরা অল্টকয়েন নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে পছন্দ করে। কিন্তু এটি করার সর্বোত্তম পদ্ধতি কী? আপনার অ্যাসেট বরাদ্দ সম্পর্কে সাবধানে চিন্তা করে ও আপনার ক্রিপ্টো পোর্টফোলিওতে নিয়মিত ভারসাম্য বজায় রাখার মাধ্যমে আপনার সফল হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। আপনার ঝুঁকি সহনশীলতার উপর নির্ভর করে এটি করার কয়েকটি উপায় রয়েছে। আপনার পোর্টফোলিওর ভারসাম্য রক্ষা করা কঠিন নয় এবং ফলাফলও আক্ষরিক অর্থেই চলে আসে।

cta


ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও কী?

কোনো ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও হল কোনো বিনিয়োগকারী বা ট্রেডারের মালিকানাধীন ক্রিপ্টোকারেন্সির একটি সংগ্রহ। পোর্টফোলিওতে সাধারণত অল্টকয়েন ও ক্রিপ্টো আর্থিক পণ্যসহ বিভিন্ন ধরনের অ্যাসেট থাকে। এটি কোন প্রচলিত বিনিয়োগ পোর্টফোলিওর মতোই, ব্যতিক্রম শুধু এই যে আপনি একটি অ্যাসেট শ্রেণীতে স্থির থাকছেন। আপনি কোনো স্প্রেডশিট দিয়ে ম্যানুয়ালি আপনার ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও ট্র্যাক করতে পারেন বা আপনার হোল্ডিং ও লাভ গণনা করতে বিশেষ সরঞ্জাম ও সফ্টওয়্যার ব্যবহার করতে পারেন। একটি ভালো পোর্টফোলিও ট্র্যাকার কার্যকর হতে পারে। ট্র্যাকাররা ডে ট্রেডার ও অন্যান্য স্বল্প-মেয়াদী ট্রেডারদের জন্য অপরিহার্য কিন্তু দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগকারী ও হোল্ডারদের জন্যও লাভজনক হতে পারে।


অ্যাসেট বরাদ্দ ও বৈচিত্র্য কী?

একটি বিনিয়োগ পোর্টফোলিও তৈরি করার সময় আপনাকে অ্যাসেট বরাদ্দ ও বৈচিত্র্যের ধারণাগুলোর সাথে পরিচিত থাকতে হবে। অ্যাসেট বরাদ্দ বলতে বিভিন্ন অ্যাসেট শ্রেণীতে (যেমন, ক্রিপ্টোকারেন্সি, স্টক, বন্ড, মূল্যবান ধাতু, নগদ ইত্যাদি) বিনিয়োগ করাকে বোঝায়। বৈচিত্র্য মানে বিভিন্ন অ্যাসেট বা সেক্টর জুড়ে আপনার বিনিয়োগের ফান্ড বিতরণ করা। উদাহরণস্বরূপ, আপনি কৃষি, প্রযুক্তি, জ্বালানী ও স্বাস্থ্যসেবার মতো বিভিন্ন শিল্পে বিনিয়োগ করে আপনার স্টক হোল্ডিংকে বৈচিত্র্যময় করতে পারেন। এই উভয় কৌশলই আপনার সামগ্রিক ঝুঁকি হ্রাস করে।

প্রযুক্তিগতভাবে, ক্রিপ্টোকারেন্সি হল একক অ্যাসেট শ্রেণী। কিন্তু একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি পোর্টফোলিওতে, আপনি বিভিন্ন লক্ষ্য ও ব্যবহার ক্ষেত্র থাকা পণ্য, কয়েন ও টোকেন জুড়ে বৈচিত্র্য আনতে পারেন। উদাহরণস্বরূপ, আপনি 40% বিটকয়েন, 30% স্ট্যাবলকয়েন, 15% NFT, ও 15% অল্টকয়েনে আপনার পোর্টফোলিও বরাদ্দ করতে পারেন। বিষয়টির আরো বিস্তারিত জানতে, অ্যাসেট বরাদ্দ ও বৈচিত্র্যের ব্যাখ্যা দেখুন।


কেন্দ্রীভূত বনাম বৈচিত্র্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও 

অধিকাংশ পরামর্শই আপনাকে বলবে যে আপনার ক্রিপ্টো পোর্টফোলিওকে বৈচিত্র্যময় করতে হবে। বিনিয়োগকারীদের জন্য এটি স্ট্যান্ডার্ড হলেও, বিভিন্ন অ্যাসেটে আপনার পুঁজি ছড়িয়ে দেওয়ার সুবিধা ও অসুবিধা দুটোই রয়েছে। আমরা ইতোমধ্যে যেভাবে উল্লেখ করেছি যে কোনো বৈচিত্র্যপূর্ণ পোর্টফোলিও সামগ্রিক ঝুঁকি ও অস্থিরতা হ্রাস করে। ক্ষতি লাভ দ্বারা পূরণ করা যেতে পারে ও আপনার অবস্থান স্থিতিশীল রাখতে পারে। আপনার মালিকানাধীন প্রতিটি মুদ্রা দিয়ে আপনার পোর্টফোলিওতে লাভ করার অধিক সুযোগ রয়েছে। প্রতিটি বিনিয়োগই লাভবান হবে না, তবে সঠিক অ্যাসেট বরাদ্দ ও বৈচিত্র্যের মাধ্যমে আপনার দীর্ঘমেয়াদে লাভ করার সম্ভাবনা বেশি।

তবে, আপনার পোর্টফোলিও যত বেশি বৈচিত্র্যময় হবে, এটি সামগ্রিক মার্কেটকে তত কাছে থেকে ট্র্যাক করবে। অধিকাংশ ট্রেডার ও বিনিয়োগকারীরা বড় লাভ দিয়ে মার্কেটকে হারাতে চাইছেন। অত্যন্ত বৈচিত্র্যময় কোনো পোর্টফোলিওর গড় আয়ের সম্ভাবনা সফল কেন্দ্রীভূত পোর্টফোলিওর চেয়ে বেশি। খারাপ পারফরম্যান্স করা অ্যাসেট উচ্চ উপার্জনকারীদের ভারসাম্য করতে পারে।

বৈচিত্রপূর্ণ কোনো পোর্টফোলিও পরিচালনার জন্য অধিক সময় ও গবেষণা প্রয়োজন। ভালোভাবে বিনিয়োগ করার জন্য আপনি কি কিনছেন তা আপনার বুঝতে হবে। কোনো বড় পোর্টফোলিওর ক্ষেত্রে সবকিছু বোঝার সম্ভাবনা কমে যাবে। আপনার পোর্টফোলিও যদি বিভিন্ন ব্লকচেইন জুড়ে থাকে, তাহলে আপনার অ্যাসেট অ্যাক্সেস করতে আপনাকে একাধিক ওয়ালেট ও এক্সচেঞ্জ ব্যবহার করতে হতে পারে। বৈচিত্র্যময় করা বা না করার সিদ্ধান্ত আপনার, তবে কিছু বৈচিত্র্য সর্বদা সুপারিশ করা হয়।


বিভিন্ন ধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সি

বিটকয়েন হল সবচেয়ে বিখ্যাত ক্রিপ্টোকারেন্সি ও মার্কেট ক্যাপ অনুসারে সবচেয়ে বড়। কিন্তু একটি উপযুক্ত-ভারসাম্যপূর্ণ পোর্টফোলিও সামগ্রিক ঝুঁকি কমাতে বিভিন্ন মুদ্রার একটি সমাহার অন্তর্ভুক্ত করবে। চলুন সেগুলোর কিছু কিছু দেখে নেয়া যাক।

পেমেন্ট কয়েন

আজকাল, এমন নতুন কয়েন খুঁজে পাওয়া কঠিন যেগুলো মূলত পেমেন্ট ডিল করে। কিন্তু আপনি যদি ক্রিপ্টোকারেন্সির জন্মের দিকে ফিরে যান, তাহলে দেখবেন যে অধিকাংশ প্রকল্পই ছিল ভ্যালু ট্রান্সফার করার সিস্টেম। বিটকয়েন হল সবচেয়ে সুপরিচিত উদাহরণ হলেও আমাদের কাছে রিপল (XRP), বিটকয়েন ক্যাশ (BCH), ও লাইটকয়েন (LTC) রয়েছে। এই কয়েনগুলো হল ইথিরিয়াম ও স্মার্ট চুক্তির প্রবর্তনের আগে থাকা প্রথম প্রজন্মের ক্রিপ্টোকারেন্সি।

স্ট্যাবলকয়েন

স্ট্যাবলকয়েন অন্তর্নিহিত অ্যাসেট যেমন একটি ফিয়াট মুদ্রা বা মূল্যবান ধাতু ট্র্যাক করার চেষ্টা করে। উদাহরণস্বরূপ, BUSD 1:1 অনুপাতে নির্ধারিত রিজার্ভসহ মার্কিন ডলারকে পেগ করে। PAX Gold (PAXG) একই সিস্টেম ব্যবহার করে তবে মুদ্রাটিকে রিজার্ভে রাখা এক সূক্ষ্ম ট্রয় আউন্স সোনার দামের সাথে বেঁধে দেয়। স্ট্যাবলকয়েনগুলো কোনো বড় লাভ প্রদান করে করলেও এগুলো তাদের নামের মান রাখে ও স্থিতিশীলতা প্রদান করে।

ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেট অস্থির, তাই আপনার পোর্টফোলিওতে এমন কিছু যদি থাকে যা এটির ভ্যালু রক্ষা করে তাহলে সেটি উপকারী। স্ট্যাবলকয়েন যদি ক্রিপ্টো ইকোসিস্টেমের বাইরের কিছু পেগ করে, তাহলে ক্রিপ্টো মার্কেটের দরপতন এটিকে প্রভাবিত করবে না। আপনি যদি কোনো মুদ্রা বা প্রজেক্ট থেকে টোকেনগুলো সরাতে চান, তাহলে আপনার লাভগুলোকে সুরক্ষিত রাখতে আপনি দ্রুত সেগুলোকে ডলার-সমর্থিত স্ট্যাবলকয়েনে BUSD-এ ট্রান্সফার করতে পারেন। ফিয়াটে রূপান্তর করা স্ট্যাবলকয়েনের জন্য ট্রেড করার চেয়ে অনেক দীর্ঘ প্রক্রিয়া।

নিরাপত্তা টোকেন

প্রথাগত সিকিউরিটিজের মতো, কোনো নিরাপত্তা টোকেন অনেক কিছুর প্রতিনিধিত্ব করতে পারে। এটি কোনো কোম্পানির ইক্যুইটি হতে পারে, কোনো প্রজেক্টের ইস্যু করা একটি বন্ড হতে পারে বা এমনকি ভোটের অধিকারও হতে পারে। সিকিউরিটিগুলোকে কার্যকরভাবে ডিজিটাইজ করা হয়েছে ও ব্লকচেইনে রাখা হয়েছে, যার অর্থ হল তারা অধিকাংশই একই নিয়মের অধীনে পড়ে। এই কারণে, সিকিউরিটি টোকেনগুলো স্থানীয় নিয়ন্ত্রকদের এখতিয়ারে রয়েছে এবং ইস্যু করার আগে অবশ্যই একটি আইনি প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হবে।

ইউটিলিটি টোকেন

ইউটিলিটি টোকেন কোনো পরিষেবা বা পণ্যের চাবিকাঠি হিসেবে কাজ করে। উদাহরণস্বরূপ, BNB ও ETH দুটোই ইউটিলিটি টোকেন। অন্যান্য জিনিসের মধ্যে, ডিসেন্ট্রালাইজড অ্যাপ্লিকেশন (DApps) এর সাথে ইন্টারঅ্যাক্ট করার সময় আপনি লেনদেনের ফি প্রদানের জন্য তাদের ব্যবহার করতে পারেন। ফান্ড সংগ্রহের জন্য অনেক প্রজেক্ট কয়েন অফারিং-এ তাদের নিজস্ব ইউটিলিটি টোকেন ইস্যু করে। তাত্ত্বিকভাবে টোকেনের মান এটির ইউটিলিটির মানের সাথে সরাসরি সংশ্লিষ্ট থাকার কথা।

গভর্নেন্স টোকেন

কোন গভর্নেন্স টোকেন ধারণ করার মাধ্যমে আপনি কোনো প্রজেক্টে ভোট দেওয়ার ক্ষমতা ও এমনকি আয়ের একটি অংশ পেতে পারেন। এই টোকেনগুলোকে আপনার ডিসেন্ট্রালাইজড অর্থায়ন (DeFi) প্ল্যাটফর্ম যেমন PancakeSwap, Uniswap বা SushiSwap-এ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে । ইউটিলিটি টোকেনের মতোই, কোনো গভর্নেন্স টোকেনের মান সরাসরি অন্তর্নিহিত প্রজেক্টের সাফল্যের সাথে সম্পর্কিত।


আর্থিক ক্রিপ্টো পণ্য

কোনো পোর্টফোলিওতে শুধুমাত্র বিভিন্ন কয়েনই থাকতে হবে তা নয়। আর্থিক ক্রিপ্টো পণ্যগুলো আপনার পোর্টফোলিওকে আরো বৈচিত্র্যময় করতে সাহায্য করতে পারে। এটিকে শুধুমাত্র শেয়ার হোল্ড করার পরিবর্তে সরকারী বন্ড, ইটিএফ বা মিউচুয়াল ফান্ডে বিনিয়োগ করার মতো করে ভাবতে পারেন। বিভিন্ন ব্লকচেইন ও DApps জুড়ে আপনি প্রচুর পরিমাণে পণ্য বিনিয়োগ করতে পারেন।

এই বিষয়ে আপনি নতুন হলে Binance বিভিন্ন ধরনের আর্থিক পণ্য অফার করে। সেগুলো দেখতে, আপনার Binance অ্যাকাউন্টে লগ ইন করে [ফাইন্যান্স] সেকশনে যান। এই সকল পণ্যগুলোর বিভিন্ন ঝুঁকির মাত্রা রয়েছে, তাই ঝুঁকি নেওয়ার আগে নিশ্চিত করুন যে আপনি তাদের কাজের প্রক্রিয়াটি বুঝতে পেরেছেন।

Binance আর্থিক পণ্য


একটি যথাযথ-ভারসাম্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও কিভাবে তৈরি করবেন

একটি সুষম ভারসাম্যপূর্ণ ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও কী তৈরি করে সে সম্পর্কে প্রতিটি বিনিয়োগকারী বা ট্রেডারের নিজস্ব ধারণা থাকবে। তবে, বিবেচনা করার মতো কিছু সাধারণ নিয়ম রয়েছে:

1. আপনার পোর্টফোলিওকে উচ্চ, মাঝারি ও কম-ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগে ভাগ করে এগুলোর জন্য উপযুক্ত মান প্রদান করুন। কোনো পোর্টফোলিও একটি বড় অংশ উচ্চ-ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ হিসেবে থাকলে সেটি অবশ্যই ভারসাম্যপূর্ণ নয়। এটির আধ্যমে আপনাকে বড় লাভ আসার সুযোগ থাকতে পারে তবে ক্ষতিও বিশাল হতে পারে। আপনার ঝুঁকির প্রোফাইল নির্ধারণ করবে আপনার জন্য কোনটি সবচেয়ে, তবে কিছু মিশ্রণ থাকা উচিত।

2. আপনার পোর্টফোলিওর জন্য তারল্য প্রদানে সহায়তা করার জন্য কিছু স্ট্যাবলকয়েন রাখার কথা বিবেচনা করুন। স্ট্যাবলকয়েন অনেক DeFi প্ল্যাটফর্মের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অংশ এবং এটি আপনাকে দ্রুত ও খুব সহজে লাভ লক করতে বা কোনো পজিশন থেকে বের হতে সাহায্য করতে পারে।

3. প্রয়োজনে আপনার পোর্টফোলিও রিব্যালেন্স করুন। ক্রিপ্টো মার্কেট খুবই অস্থির এবং চলমান পরিস্থিতির উপর নির্ভর করে আপনার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে হবে।

4. আপনার পোর্টফোলিওর কোনো একটি ক্ষেত্রে অতিরিক্ত মান দেয়া এড়াতে নতুন মূলধন কৌশলের মাধ্যমে বরাদ্দ করুন। সম্প্রতি কোন কয়েন থেকে আপনি বড় লাভ করলে সেটিতে আরো বেশি অর্থ খাটানোর জন্য প্রলুব্ধ হতে পারেন। লোভের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত না হয়ে কোথায় টাকা খাটানো যায় সেটি বিবেচনা করুন।

5. আপনার নিজস্ব গবেষণা করুন। এই কালজয়ী পরামর্শের কোনো বিকল্প নেই। আপনি আপনার নিজের অর্থ বিনিয়োগ করছেন, তাই শুধুমাত্র অন্যের পরামর্শের উপর নির্ভর করবেন না। সম্ভাব্য স্ক্যামগুলো চিহ্নিত করার টিপসের জন্য ক্রিপ্টোকারেন্সির 5টি সাধারণ স্ক্যাম ও কিভাবে সেগুলো এড়ানো যায় দেখুন। 

6. ততটুকুই বিনিয়োগ করবেন যতটুকুর লোকসান বহন করার ক্ষমতা আপনার রয়েছে। চাপ অনুভব করার মানেই হচ্ছে আপনার পোর্টফোলিও সঠিকভাবে ভারসাম্যপূর্ণ হয়নি। সবকিছু ঠিকঠাকভাবে না হলেও যাতে আপনার পজিশন আপনার গুরুতর পরিণতির কারণ না হয় সেটি নিশ্চিত করতে হবে।

cta


ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও ট্র্যাকার

পোর্টফোলিও ট্র্যাকার হল একটি প্রোগ্রাম বা পরিষেবা যা আপনাকে আপনার হোল্ডিংয়ের গতিবিধি ট্রেস করার সুযোগ প্রদান করে। আপনার বর্তমান বরাদ্দ আপনার দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্যগুলোর সাথে কিভাবে সামঞ্জস্যপূর্ণ তা আপনি দেখতে পারেন এবং এটি আপনার অগ্রগতি ট্র্যাক করে। এখানে কিছু উদাহরণ রয়েছে যা আপনি বিবেচনা করতে চাইতে পারেন:

CoinMarketCap

CoinMarketCap একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় মূল্য ট্র্যাকার যেটি তার নিজস্ব পোর্টফোলিও বৈশিষ্ট্য তৈরি করেছে। ডেস্কটপ ও মোবাইল ডিভাইসের জন্য পোর্টফোলিও ট্র্যাকারটি বিনামূল্যে পাওয়া যায়। পোর্টফোলিও ট্র্যাকারটি ব্যবহার করতে আপনার হোল্ডিং-এ আপনাকে ম্যানুয়ালি যুক্ত করতে হবে কারণ এটি আপনার ওয়ালেট বা এক্সচেঞ্জের সাথে সংযোগ করে না। আপনার লাভ সঠিকভাবে ট্র্যাক করতে আপনি যে মূল্যে কিনেছেন সেটি যোগ করার অপশনও রয়েছে।

CoinGecko 

CoinGecko প্রধানত এটির ক্রিপ্টোকারেন্সি মূল্য ট্র্যাকিংয়ের জন্য পরিচিত, তবে এটির একটি পোর্টফোলিও অপশনও রয়েছে। এটি ফ্রিতে ব্যবহার করা যায় এবং আপনার ব্রাউজার বা মোবাইল ডিভাইসের জন্য উপলভ্য। আপনি যদি ইতোমধ্যেই CoinGecko এর একজন নিয়মিত ব্যবহারকারী হন, তাহলে ট্র্যাকারটিও পরীক্ষা করে দেখার মতো।

Delta

ডেল্টা হল একটি মোবাইল অ্যাপ যা আপনাকে আপনার ক্রিপ্টো পোর্টফোলিও ও নিয়মিত বিনিয়োগগুলো একই সাথে দেয়ার সুযোগ প্রদান করে। Binance-সহ এটি 20টি এক্সচেঞ্জ ও বিভিন্ন ধরণের ওয়ালেটের সাথে সংযোগ করার সুযোগ প্রদান করে। এটির ফ্রি ও পেইড উভয় সংস্করণই রয়েছে তবে আপনি অ্যাপের মধ্যে ট্রেড করতে পারবেন না।


শেষ কথা

ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেটের অনেকটাই বিটকয়েনের পরিস্থিতির উপর নির্ভরশীল। কিন্তু এটি আপনার পোর্টফোলিওর ভারসাম্য রক্ষা না করার কোনো কারণ নয়। বিভিন্ন ক্রিপ্টোতে বিনিয়োগ বিটকয়েন ক্র্যাশের সময় ঘটে যাওয়া কিছু লোকসান পূরণ করতে পারে, তাই কিছু বৈচিত্র্য থাকা সবসময়ই কাজের। মনে রাখবেন, একাধিক কয়েন রাখা ছাড়াও, আপনার পোর্টফোলিওর ভারসাম্য বজায় রাখার বাড়তি গুরুত্ব রয়েছে। কিছুটা কৌশল অবলম্বন করা আপনার ঝুঁকি সহনশীলতার জন্য একটি উপযুক্ত পোর্টফোলিও তৈরিতে সফলতা নিয়ে আসবে।