অ্যান্টি মানি লন্ডারিং (AML) কী?
সুচিপত্র
ভূমিকা
AML কী?
AML ও KYC-এর মধ্যে পার্থক্য কী?
মানি লন্ডারিং কী?
মানুষ কিভাবে অর্থ পাচার করে?
AML পদক্ষেপ কিভাবে কাজ করে?
FATF কী?
ক্রিপ্টোতে আমাদের KYC দরকার কেন?
ক্রিপ্টো মানি লন্ডারিংয়ের উদাহরণ
Binance কিভাবে AML-কে সহায়তা করে?
শেষ কথা
অ্যান্টি মানি লন্ডারিং (AML) কী?
হোম
নিবন্ধ
অ্যান্টি মানি লন্ডারিং (AML) কী?

অ্যান্টি মানি লন্ডারিং (AML) কী?

প্রকাশিত হয়েছে Aug 18, 2021আপডেট হয়েছে Feb 1, 2023
7m

TL;DR

AML প্রবিধান অবৈধ ফান্ডের অবৈধ লন্ডারিং বন্ধ করার চেষ্টা করে। স্বতন্ত্র সরকার ও বহুজাতিক সংস্থা যেমন FATF মানি লন্ডারিং কার্যক্রমের বিরুদ্ধে আইন প্রণয়ন করে।

মানি লন্ডারিং "অবৈধ" অর্থ নেয় এবং এটিকে পরিষ্কার অর্থে পরিণত করে। এটি ফান্ডের উৎসকে ছদ্মবেশ পরিয়ে তাদের বৈধ লেনদেনের সাথে মিশ্রিত করে বা বৈধ অ্যাসেটে বিনিয়োগ করে করা যেতে পারে।

ক্রিপ্টো তার গোপনীয়তা, ফান্ড পুনরুদ্ধার করতে অসুবিধা এবং অনুন্নত আইনের কারণে অর্থ পাচারের একটি আকর্ষণীয় উপায়। ক্রিপ্টোর বড়সড় জব্দ প্রমাণ করে যে বিপুল পরিমাণ অর্থ পাচারের জন্য অপরাধীরা নিয়মিত এটি ব্যবহার করে।

Binance এবং অন্যান্য অনেক ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ তাদের AML পরিপালনের অংশ হিসেবে সন্দেহজনক আচরণ ট্র্যাক করে এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে রিপোর্ট করে।


ভূমিকা

অ্যান্টি-মানি লন্ডারিং (AML) প্রবিধানগুলো অবৈধ ফান্ড সাদা করার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়তা করে। গ্রাহকদের নিরাপদ রাখতে ও আর্থিক অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সহায়তা করতে সেগুলো কেন্দ্রীভূত ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জের জন্য বাধ্যতামূলক। ক্রিপ্টোকারেন্সির বেনামী প্রকৃতির কারণে এর প্রবিধান গ্রাহকের আচরণ ও পরিচয় পর্যবেক্ষণের উপর অনেক বেশি নির্ভর করে।


AML কী?

AML এমন প্রবিধান এবং আইন নিয়ে গঠিত যা অবৈধ ফান্ড চলাচল এবং সাদা কোরাকে বাধা দেয়। আন্তর্জাতিক সহযোগিতাকে উৎসাহিত করার জন্য AML 1989 সালে প্রতিষ্ঠিত ফাইন্যান্সিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সের (FATF) সাথে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। উদাহরণস্বরূপ, AML-এর পদক্ষেপসমূহ সন্ত্রাসী অর্থায়ন, ট্যাক্স জালিয়াতি এবং আন্তর্জাতিক চোরাচালানকে টার্গেট করে। AML দেশভেদে ভিন্ন হলেও মানদণ্ডগুলোর মধ্যে সমন্বয় করার জন্য একটি বৈশ্বিক প্রচেষ্টা রয়েছে।

প্রযুক্তি যেমন এগিয়েছে তেমনি এগিয়েছে মানি লন্ডারিংয়ের পদ্ধতিও। ফলস্বরূপ, AML সফ্টওয়্যার সাধারণত এমন আচরণকে ফ্ল্যাগ করে যা সন্দেহজনক হিসেবে দেখা যেতে পারে। এই ফ্ল্যাগ ও ব্যবস্থাগুলোর মধ্যে অর্থের বড় স্থানান্তর, অ্যাকাউন্টে ফান্ডের বারবার অন্তঃপ্রবাহ এবং ওয়াচলিস্টে থাকা ব্যবহারকারীদের বিরুদ্ধে ক্রস-চেক অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। AML শুধুমাত্র ক্রিপ্টোকারেন্সিতে প্রযোজ্য নয়। যেকোনো অ্যাসেট বা ফিয়াট কারেন্সির জন্য AML প্রবিধান কার্যকর হতে পারে।

ক্রিপ্টোকারেন্সি নিয়ে কাজ শুরু করতে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর কিছুটা সময় লেগে গেছে। ব্লকচেইন প্রযুক্তি ক্রমাগত উদ্ভাবন করতে থাকায় AML পদ্ধতি কমপ্লায়েন্স পদক্ষেপের সাথে সাথে নিয়মিতভাবে পরিবর্তিত হচ্ছে। তবে, এটিকে সবসময় ইতিবাচক হিসেবে দেখা হয় না। অনেক ক্রিপ্টোকারেন্সি উৎসাহী অ্যাসেটের বেনামী এবং বিকেন্দ্রীকরণকে মূল্য দেয়। এই কারণে, ব্যবহারকারীদের পরিচয়ের বর্ধিত নিয়ন্ত্রণ ও ডকুমেন্টেশন কখনও কখনও ক্রিপ্টোর নীতির বিপরীত হিসেবে দেখা হয়।


AML ও KYC-এর মধ্যে পার্থক্য কী?

আপনার গ্রাহককে জানুন (KYC) চেকগুলো আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং পরিষেবা প্রদানকারীদের জন্য AML আইনের অংশ হিসেবে একটি বাধ্যবাধকতা। KYC-এর জন্য কোনো ব্যবহারকারীকে তাদের পরিচয় যাচাই করে ব্যক্তিগত তথ্য জমা দিতে হবে। এই প্রক্রিয়া ব্যবহারকারীর দ্বারা করা যেকোনো আর্থিক লেনদেনের জন্য জবাবদিহিতা তৈরি করে। KYC হলো AML-এর একটি সক্রিয় অংশ এবং গ্রাহকের মূল্যায়নের আওতায় পড়ে। এটি অন্যান্য AML অনুশীলনের বিপরীত যা প্রতিক্রিয়াশীলভাবে সন্দেহজনক আচরণের তদন্ত করে।


মানি লন্ডারিং কী?

মানি লন্ডারিং হলো যখন অপরাধীরা অবৈধ ফান্ডকে বৈধ অর্থ, বিনিয়োগ বা আর্থিক অ্যাসেট হিসেবে দেখায়। মাদক পাচার, সন্ত্রাসবাদ এবং প্রতারণার মতো অপরাধ থেকে এই আয়গুলো আসে। মানি লন্ডারিং প্রতিরোধের আইন ও প্রবিধান দেশ ভেদে ভিন্ন হয়। তবে, নিয়মের মধ্যে সমন্বয় বাড়ানো অনেক অধিক্ষেত্র এবং FATF-এর লক্ষ্য।

অর্থ পাচারের তিনটি ধাপ রয়েছে:

  • প্লেসমেন্ট: আর্থিক ব্যবস্থায় "অবৈধ" অর্থ প্রবর্তন করা, যেমন ক্যাশ-ভিত্তিক ব্যবসার মাধ্যমে।

  • স্তরবিন্যাস: তাদের ট্র্যাকিং কঠিন করতে অবৈধ ফান্ড এদিক ওদিক সরানো। ক্রিপ্টোর ব্যবহার "অবৈধ" অর্থের উৎস লুকানোর একটি উপায়।

  • ইন্টিগ্রেশন: অর্থনীতিতে "অবৈধ" অর্থ পুনঃপ্রবর্তন করতে আইনি বিনিয়োগ এবং অন্যান্য আর্থিক চ্যানেল ব্যবহার করা।


মানুষ কিভাবে অর্থ পাচার করে?

উপরের তিনটি ধাপ অর্জনের একাধিক উপায় রয়েছে। দোকান, রেস্তোরাঁ এবং অন্যান্য ব্যবসায় ক্যাশ-ভিত্তিক পরিষেবার জন্য জাল রসিদ তৈরি করা একটি প্রচলিত পদ্ধতি। কোনো ব্যক্তি বা সংস্থা ব্যবসাগুলোকে মানি লন্ডারিংয়ের ফ্রন্ট হিসেবে ব্যবহার করে। অপরাধীরা জাল রসিদ তৈরি করে এবং তাদের জন্য "অবৈধ" ফিজিক্যাল ক্যাশ প্রদান করে যা তাদেরকে বৈধ আয়ে পরিণত করে। এই অন্তঃপ্রবাহ তারপর আসল লেনদেনের সাথে মিশ্রিত হয় যাতে দুটির মধ্যে পার্থক্য করা কঠিন হয়ে যায়।

তবে, এখন অবৈধ ফান্ডের জন্য ক্যাশ অর্থের পরিবর্তে ডিজিটাল হওয়া সাধারণ প্রক্রিয়া। এই পার্থক্য অর্থ পাচারের জন্য ব্যবহৃত পদ্ধতি পরিবর্তন করে। আগের চেয়ে "অবৈধ" টাকা লুকানোর এবং সাদা করার জন্য এখন আরো বেশি বিকল্প রয়েছে। উদাহরণস্বরূপ, আপনি একটি কোনো ব্যবহার না করে সরাসরি অর্থ স্থানান্তর করতে পারেন। পেপ্যাল বা ভেনমোর মতো পেমেন্ট নেটওয়ার্ক লন্ডারদের ব্যবহার করার জন্য এবং নিয়ন্ত্রকদের নিরীক্ষণের জন্য আরেকটি স্তর সরবরাহ করে।

ভিপিএন এবং ক্রিপ্টোকারেন্সির মতো বেনামী প্রযুক্তি পরিস্থিতিকে আরো চ্যালেঞ্জিং করে তোলে। লন্ডারিং কার্যকলাপের জন্য একটি নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে নির্দিষ্ট করা অসম্ভব হতে পারে। এটির সাথে লড়াই করার একটি পদ্ধতি হলো ক্রিপ্টোকে "প্রান্তে" ট্র্যাক করা। কোনো এক্সচেঞ্জে ব্লকচেইন "পেপার ট্রেইল" অনুসরণ করে, আপনি লন্ডার করা ফান্ডগুলোকে একটি ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জ অ্যাকাউন্ট বা কারও নামে ব্যাংল অ্যাকাউন্টের সাথে সংযুক্ত করতে পারেন। তবে, ক্যাশে বা পিয়ার-টু-পিয়ার পরিষেবার মাধ্যমে ক্রিপ্টো কেনা আর্থিক ব্যবস্থায় অবৈধ অর্থের প্রবেশ বা প্রস্থানকে ট্র্যাক করা কঠিন করে তোলে।

আরেকটি পছন্দের পদ্ধতি হলো অনলাইন জুয়া সাইটগুলো ব্যবহার করা। অপরাধীরা পাচার করতে চাওয়া অর্থ অনলাইন জুয়া অ্যাকাউন্টে জমা করে। তারপরে তারা অ্যাকাউন্টটিকে বৈধ দেখাতে বাজি রাখার জন্য এগিয়ে যায়। অবশেষে, তারা তাদের ফান্ড সরিয়ে দেয় এবং পরিচ্ছন্ন অর্থ দিয়ে শেষ করে। সাধারণত যেন সন্দেহ না জাগে সেজন্য এটি একাধিক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে করা হয়। প্রচুর পরিমাণে ফান্ডসহ একটি একক অ্যাকাউন্ট একটি AML চেক ফ্ল্যাগ আপ করতে পারে।


AML পদক্ষেপ কিভাবে কাজ করে?

আপনি কোনো নিয়ন্ত্রক বা ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জের মৌলিক ক্রিয়াকলাপগুলোকে তিনটি ধাপে বিভক্ত করতে পারেন:

1. সন্দেহজনক কার্যকলাপ, যেমন বৃহৎ অর্থপ্রবাহ বা ফান্ডের বহিঃপ্রবাহ, স্বয়ংক্রিয়ভাবে ফ্ল্যাগড বা রিপোর্ট করা। অসামঞ্জস্যপূর্ণ আচরণ, যেমন সাধারণত কম-সক্রিয় থাকা অ্যাকাউন্ট থেকে উত্তোলনের সংখ্যা বৃদ্ধি হলো আরেকটি উদাহরণ।

2. তদন্তের সময় বা পরে ব্যবহারকারীর ফান্ড জমা বা তোলার ক্ষমতা বন্ধ হয়ে যায়। এই পদক্ষেপটি আরো সম্ভাব্য লন্ডারিং কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। তদন্তকারী তারপর একটি সন্দেহজনক কার্যকলাপ রিপোর্ট (SAR) তৈরি করে।

3. অবৈধ কার্যকলাপের প্রমাণ থাকলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয় এবং প্রমাণ সরবরাহ করা হয়। চুরি করা ফান্ড পাওয়া গেলে, সম্ভব হলে সেগুলো তাদের আসল মালিকদের কাছে ফেরত দেওয়া হবে।

ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জগুলো সাধারণত AML-তে একটি সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণ করে। ক্রিপ্টো ইন্ডাস্ট্রির উপর প্রচুর পরিমাণে কমপ্লায়েন্স চাপের কারণে Binance-এর মত এক্সচেঞ্জের জন্য প্রয়োজনের তুলনায় আরো সতর্ক থাকাই স্ট্যান্ডার্ড। লেনদেন পর্যবেক্ষণ এবং বর্ধিত মূল্যায়ন হলো মানি লন্ডারিং স্কিমগুলোর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের দুটি মূল হাতিয়ার।


FATF কী?

FATF হলো একটি আন্তর্জাতিক সংস্থা যা G7 দ্বারা সন্ত্রাসবাদের অর্থায়ন এবং মানি লন্ডারিংয়ের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। বিশ্বব্যাপী সরকারগুলোকে মেনে চলা উচিত এমন মানগুলোর একটি সেট তৈরি করার মাধ্যমে লন্ডারাররা কাজ করার জন্য অধিক্ষেত্র খুঁজে পাওয়া ক্রমবর্ধমান কঠিন বলে মনে করে। 

সরকারগুলোর মধ্যে সহযোগিতা তথ্য আদান-প্রদান এবং লন্ডারকারীদের ট্র্যাকিংকেও উন্নত করে। 200টিরও বেশি অধিক্ষেত্র FATF মান অনুসরণ করার জন্য প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। FATF সকল অংশগ্রহণকারীদের নিয়মিত পিয়ার রিভিউসহ প্রবিধান মেনে চলছে তা নিশ্চিত করার জন্য তাদের পর্যবেক্ষণ করে।


ক্রিপ্টোতে আমাদের KYC দরকার কেন?

ক্রিপ্টোকারেন্সির ছদ্মনাম থাকার প্রকৃতির কারণে, এটি প্রায়শই অবৈধ ফান্ড লন্ডারিং ও কর ফাঁকির জন্য ব্যবহৃত হয়। ক্রিপ্টোকারেন্সির নিয়ন্ত্রন এর সামগ্রিক খ্যাতি উন্নত করে এবং নিশ্চিত করে যে যথাযথ কর সংগ্রহ করা হয়েছে। AML-এর উন্নতিগুলো বৈধ ক্রিপ্টো ব্যবহারকারীদের উপকৃত করে, যদিও এর জন্য সকল পক্ষের অতিরিক্ত প্রচেষ্টা এবং সময় বিনিয়োগের প্রয়োজন হয়।

রয়টার্সের মতে, অপরাধীরা 2020 সালে ক্রিপ্টোর মাধ্যমে আনুমানিক $1.3 বিলিয়ন (মার্কিন ডলার) "অবৈধ" অর্থ পাচার করেছে। ক্রিপ্টো বিভিন্ন কারণে মানি লন্ডারিংয়ের জন্য উপযুক্ত:

1. ব্লকচেইন লেনদেন অপরিবর্তনীয়। একবার আপনি ব্লকচেইনের মাধ্যমে ফান্ড প্রেরণ করলে, নতুন মালিক তাদের ফেরত না পাঠালে সেগুলো ফেরত দেওয়া যাবে না। পুলিশ এবং নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলো আপনার জন্য ফান্ড পুনরুদ্ধার করতে পারে না।

2. ক্রিপ্টোকারেন্সি বেনামী অফার করে। মনেরোর মত কিছু মুদ্রা লেনদেনের গোপনীয়তার অগ্রাধিকার দেয়। এছাড়াও “টাম্বলার” পরিষেবা রয়েছে যেটি বিভিন্ন ওয়ালেটের মাধ্যমে ক্রিপ্টোকে স্তরে স্তরে রাখে যাতে এটির পথকে ট্র্যাক করা কঠিন হয়ে যায়।

3. এটির প্রবিধান ও কর ব্যবস্থা এখনও অনিশ্চিত। কর কর্তৃপক্ষ বিশ্বব্যাপী এখনও দক্ষতার সাথে ক্রিপ্টোর উপর ট্যাক্স বসানোর চেষ্টা করছে এবং অপরাধীরা এটিকে কাজে লাগায়। 


ক্রিপ্টো মানি লন্ডারিংয়ের উদাহরণ

অপরাধীদের ট্র্যাকিং এবং ধরার ক্ষেত্রে কর্তৃপক্ষের কিছু সাফল্য আছে যারা ক্রিপ্টোর মাধ্যমে তাদের ফান্ড সাদা করে। 2021 সালের জুলাই মাসে, ইউকে পুলিশ মানি লন্ডারিংয়ে ব্যবহৃত প্রায় $250 মিলিয়ন মার্কিন ক্রিপ্টো জব্দ করেছে। এই জব্দটি ক্রিপ্টো ফান্ডের ইউকেতে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় ছিল, যা মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগে সেট করা $158 মিলিয়ন ইউকে রেকর্ডকে হারিয়েছে। 

একই মাসে, ব্রাজিলিয়ান কর্তৃপক্ষ একটি অত্যাধুনিক মানি লন্ডারিং অপারেশনে $33 মিলিয়ন জব্দ করেছে। দুই ব্যক্তি এবং 17টি কোম্পানি অবৈধভাবে প্রাপ্ত ফান্ড লুকানোর জন্য ক্রিপ্টো কেনার সাথে জড়িত ছিল। জড়িত অপরাধী সংগঠন এই একমাত্র উদ্দেশ্য মাথায় রেখেই কোম্পানিগুলো স্থাপন করেছে। ক্রিপ্টোকারেন্সি এক্সচেঞ্জগুলোও জেনেশুনে অপরাধী সংস্থাগুলোর সাথে সহযোগিতা করেছিল এবং সঠিক AML পদ্ধতি অনুসরণ করেনি।


Binance কিভাবে AML-কে সহায়তা করে?

Binance তার AML শনাক্তকরণ এবং বিশ্লেষণ ক্ষমতা সম্প্রসারণসহ মানি লন্ডারিং মোকাবেলায় সহায়তা করার জন্য সক্রিয়ভাবে অসংখ্য AML ব্যবস্থা বাস্তবায়ন করেছে। এই প্রচেষ্টাগুলো এটির AML কমপ্লায়েন্স প্রোগ্রামের অধীনে পড়ে। Binance বৃহৎ সাইবার অপরাধী সংস্থাগুলোকে বিচারের আওতায় আনতে সাহায্য করার জন্য আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সাথে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করে।

উদাহরণস্বরূপ, Binance প্রমাণ প্রদানে একটি ভূমিকা পালন করেছে যা Cl0p র‍্যানসমওয়্যার গ্রুপের একাধিক সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে। Binance সন্দেহভাজন লেনদেন এবং অপরাধমূলক কার্যকলাপকে ফ্ল্যাগড করেছে যা তখন তদন্ত করা হয়েছিল। পেটিয়া অ্যাটাকসহ (Petya attack) র‍্যানসমওয়্যার আক্রমণ থেকে অর্থ পাচারকারীদের শনাক্ত করতে কর্তৃপক্ষ আন্তর্জাতিক সংস্থার সহযোগিতায় গবেষণাটি ব্যবহার করেছে।

cta2


শেষ কথা

AML ক্রিপ্টোকারেন্সি ট্রেড করার প্রক্রিয়ায় সময় বাড়ালেও প্রত্যেককে নিরাপদ রাখা গুরুত্বপূর্ণ। দুর্ভাগ্যবশত, সরকার ও সংস্থাগুলো সকল মানি লন্ডারিং কার্যক্রম থেকে পরিত্রাণ পেতে পারে না, তবে প্রবিধান বাস্তবায়ন অবশ্যই এটিতে সাহায্য করে। সম্ভাব্য মানি লন্ডারিং চিহ্নিত করতে প্রযুক্তি উন্নত হচ্ছে এবং সিরিয়াস ক্রিপ্টো এক্সচেঞ্জগুলো অপরাধ মোকাবেলায় সহায়তা করার জন্য তাদের ভূমিকাকে গুরুত্ব সহকারে কাজে লাগাচ্ছে।