ক্রিপ্টোতে স্বাগতম

আমরা ক্রিপ্টোকারেন্সি ও ব্লকচেইন প্রযুক্তির রূপান্তরমূলক সম্ভাবনা সম্পর্কে জনসাধারণকে শিক্ষিত করার একটি মিশনে রয়েছি। এই ওয়েবসাইটে, আপনি 280টিরও বেশি নিবন্ধ পাবেন যার মধ্যে কম্পিউটার সুরক্ষা থেকে অর্থনীতি পর্যন্ত সকল কিছু অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আর এগুলো রয়েছে 17টি ভিন্ন ভিন্ন ভাষায়

আমরা জানি নতুন অবস্থায় এটি একটু কঠিন হতে পারে। ব্লকচেইন প্রযুক্তির জগতে আপনার যাত্রা শুরু করার জন্য প্রয়োজনীয় কিছু মূল ধারণার সাথে আপনাকে সহজভাবে পরিচয় করিয়ে দিতে এই নির্দেশিকাটি এখানে রয়েছে।

আর বিলম্ব না করে চলুন মূল কাজে নজর দেয়া যাক।

ক্রিপ্টোকারেন্সি কী?

ক্রিপ্টোকারেন্সি হল ক্যাশের একটি ডিজিটাল ধরণ। বার ট্যাবের আপনার শেয়ার বন্ধুকে পে করতে, আপনার চোখে চোখে রাখা নতুন মোজা জোড়া কিনতে 👀 বা আপনার পরবর্তী ছুটির জন্য ফ্লাইট ✈️ ও হোটেল 🏨 বুক করতে এটিকে আপনি ব্যবহার করতে পারেন। ক্রিপ্টোকারেন্সি যেহেতু ডিজিটাল, তাই এটিকে বিশ্বের যেকোনো স্থানে বন্ধু ও পরিবারের কাছে পাঠানো যাবে।

একদম পেপ্যাল বা ব্যাংক ট্রান্সফারের মতো, তাই না?
তবে, একদম তা নয়। এটি আরো অনেক বেশি মজার!

দেখুন, প্রচলিত অনলাইন পেমেন্ট গেটওয়েগুলো কোম্পানির মালিকানাধীন। আপনার হয়ে তারা আপনার টাকা ধরে রাখে এবং আপনি যখন এটি ব্যয় করতে চান তখন আপনার পক্ষ থেকে তা ট্রান্সফার করতে আপনাকে বলতে হবে।

ক্রিপ্টোকারেন্সিতে, কোম্পানির কোনো বিষয় নেই। আপনি, আপনার বন্ধু ও হাজার হাজার অন্যান্যরা ফ্রি সফ্টওয়্যার চালানোর মাধ্যমে আপনার নিজস্ব ব্যাংক হিসেবে কাজ করতে পারেন। আপনার কম্পিউটার অন্য আরেকজনের কম্পিউটারের সাথে যুক্ত হয় যার অর্থ আপনি সরাসরি যোগাযোগ করেন – কোনো মধ্যস্থতার প্রয়োজন নেই!

ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করার জন্য ইমেইল ঠিকানা ও পাসওয়ার্ড দিয়ে আপনাকে কোনো ওয়েবসাইটে সাইন আপ করতে হবে না। কয়েক মিনিটের মধ্যে পাঠানো ও গ্রহণ করা শুরু করার জন্য আপনি আপনার স্মার্টফোনে বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারেন।

এটিকে কেন ক্রিপ্টোকারেন্সি বলা হয়?

ক্রিপ্টোকারেন্সি নামটি ক্রিপ্টোগ্রাফি ও কারেন্সি এর সংমিশ্রণ। ক্রিপ্টোগ্রাফির সাহায্যে আমরা আমাদের ফান্ড সুরক্ষিত করার জন্য উন্নত গণিত ব্যবহার করি যা নিশ্চির করে যে অন্য কেউ সেগুলো ব্যয় করতে না পারবে না।

এই সকল কিছু বোঝার প্রয়োজন নেই – আপনি যে অ্যাপ্লিকেশনগুলো ব্যবহার করবেন সেগুলোই সকল কঠিন কাজ করবে। আপনি এমনকি আড়ালে কী ঘটছে তা আপনি জানবেনও না

তবে আপনি যদি এই ধরণের বিষয়গুলোতে আগ্রহী হন তাহলে আপনার জন্য আমাদের কয়েকটি নিবন্ধ রয়েছে:

তাহলে, ইন্টারনেটের এই জাদুকরী অর্থ কারোর মালিকানাধীন নয় এবং সিস্টেমকে সুরক্ষিত করতে ক্রিপ্টোগ্রাফি ব্যবহার করে। কিন্তু মানুষজনকে পে করার জন্য অ্যাপ্লিকেশন আপনার কাছে ইতোমধ্যেই রয়েছে – তো আপনার কী আসে যায়?

এটি

অনুমতিবিহীন icon
অনুমতিবিহীন icon

অনুমতিবিহীন

ক্রিপ্টোকারেন্সি ব্যবহার করা থেকে কেউ আপনাকে আটকাতে পারবে না। অন্যদিকে কেন্দ্রীভূত পেমেন্ট পরিষেবাগুলো অ্যাকাউন্টগুলোকে স্থগিত করতে পারে বা লেনদেন করা থেকে বিরত রাখতে পারে।

সেন্সরশিপ-প্রতিরোধী icon
সেন্সরশিপ-প্রতিরোধী icon

সেন্সরশিপ-প্রতিরোধী

নেটওয়ার্কটি যেভাবে ডিজাইন করা হয়েছে তাতে হ্যাকার বা অন্য আক্রমণকারীদের পক্ষে এটিকে বন্ধ করা কার্যত অসম্ভব।

সুলভ ও দ্রুত পেমেন্ট পদ্ধতি icon
সুলভ ও দ্রুত পেমেন্ট পদ্ধতি icon

সুলভ ও দ্রুত পেমেন্ট পদ্ধতি

বিশ্বের অন্য প্রান্তে কারো সাথে আপনি যখন লেনদেন করেন, তখন আপনার অর্থ তাদের কাছে সেকেন্ডের মধ্যেই – আন্তর্জাতিকভাবে ওয়্যার ট্রান্সফারের যে খরচ তার চেয়ে অনেক কম খরচেই চলে যায়।

সেই বিটকয়েন এর বিষয়টি কী যেটি নিয়ে আপনার বন্ধু বা পরিবারের সদস্যরা কথা বলছে? সেটিই আদি ক্রিপ্টোকারেন্সি এবং আজ অবধি সবচেয়ে জনপ্রিয়।

বিটকয়েন কে আবিস্কার করেন?

আশ্চর্যজনকভাবে, বিটকয়েন কে আবিষ্কার করেছে তা কেউ জানে না। আমরা তাদের শুধুমাত্র তাদের পর্দার নাম - সাতোশি নাকামোতো দিয়ে চিনি। সাতোশি হতে পারে কোনো একজন ব্যক্তি, প্রোগ্রামারদের একটি দল অথবা যদি আপনি অত্যন্ত অদ্ভুত তত্ত্ব বিশ্বাস করেন তাহলে সে হতে পারে সময়-পরিভ্রমণকারী কোনো এলিয়েন বা গোপন সরকারি দল।
সাতোশি 2008 সালে একটি 9-পৃষ্ঠার নথি প্রকাশ করে, যেখানে বিটকয়েন সিস্টেম কিভাবে কাজ করে তার বিশদ বিবরণ ছিল। কয়েক মাস পরে 2009 সালে, সফ্টওয়্যারটি প্রকাশিত হয়।

বিটকয়েন অন্যান্য অনেক ক্রিপ্টোকারেন্সির ভিত্তি প্রদান করেছে। কোনো কোনোটি একই সফ্টওয়্যার উপর ভিত্তি করে, আবার অন্যরা খুবই ভিন্ন পদ্ধতি গ্রহণ করে। ঠিক আছে, কিন্তু সকল ক্রিপ্টোকারেন্সির মধ্যে পার্থক্য কী?

ভিন্ন ভিন্ন সবগুলো ক্রিপ্টোকারেন্সির একটি তালিকা যদি আমরা তৈরি করতে যাই তাহলেও আমাদের কয়েক সপ্তাহ সময় লাগবে। কিছু অন্যদের তুলনায় দ্রুত, কিছু অধিক ব্যক্তিগত, কিছু আরো অধিক নিরাপদ এবং কিছু কিছু অধিক প্রোগ্রামযোগ্য।

ক্রিপ্টোকারেন্সি স্পেসে একটি প্রচলিত কথা রয়েছে: আপনার নিজের গবেষণা নিজে করুন (বা DYOR)। বিশ্বাস করুন আমরা রূঢ় হচ্ছি না। আমরা কেবল বলতে চাচ্ছি যেকোনো একটি উৎস থেকে পাওয়া তথ্যকে সত্য হিসেবে গ্রহণ করবেন না।

কোনো নির্দিষ্ট প্রজেক্টে আপনার অর্থ বিনিয়োগ করার পূর্বে নিজে থেকে সবকিছু ভালোভাবে খতিয়ে দেখেছেন তা নিশ্চিত করুন।

সকল ক্রিপ্টোকারেন্সি এক নয়!

আপনি যদি ভিন্ন ভিন্ন কয়েকটি কয়েন ও টোকেন সম্পর্কে জানতে আগ্রহী হন তাহলে আমরা Binance অ্যাকাডেমিতে নির্দেশিকার একটি তালিকা সংকলন করেছি:

পরবর্তী সেকশনে, যেটির উপর ভিত্তি করে অধিকাংশ ডিজিটাল মুদ্রা তৈরি হয় আমরা সেই প্রযুক্তি সম্পর্কে কথা বলতে যাচ্ছি, যা ব্লকচেইন নামে পরিচিত।
ব্লকচেইন কী?

ব্লকচেইন কী?

মানুষজন "ব্লকচেইন" বর্ণনা করতে অবোধগম্য প্রযুক্তিগত যে পরিভাষা ব্যবহার করে তাতে আতঙ্কিত হবেন না। ব্লকচেইন একটি ডেটাবেজ মাত্র। এটি এমনকি খুব অত্যাধুনিক কিছুও নয় - আপনি কোনো একটি স্প্রেডশিটে ন্যূনতম প্রচেষ্টায় তৈরি করতে পারেন।

এই ডেটাবেজের কিছু বিশেষত্ব আছে। প্রথমটি হল ব্লকচেইনগুলো শুধুমাত্র যোগ করার জন্য। এর মানে হল যে আপনি শুধুমাত্র তথ্য যোগ করতে পারবেন - আপনি কোনো সেলে ক্লিক করে ইতোমধ্যেই যোগ করা কোনো জিনিস মুছে ফেলতে পারবেন না বা যেকোনো উপায়ে পরিবর্তন করতে পারবেন না।
দ্বিতীয়টি হল যে, ডেটাবেজের প্রতিটি এন্ট্রি (ব্লক বলা হয়) শেষ এন্ট্রির সাথে ক্রিপ্টোগ্রাফিকভাবে সংযুক্ত। সহজ সরল ইংরেজিতে বললে, প্রতিটি নতুন এন্ট্রিতে শেষের এন্ট্রির এক ধরণের ডিজিটাল ফিঙ্গারপ্রিন্ট (হ্যাশ) থাকতে হবে।

শুধু এটুকুই! যেহেতু প্রতিটি ফিঙ্গারপ্রিন্ট শেষেরটির দিকে নির্দেশ করে, ফলে আপনার হাতে ব্লকের একটি চেইন থাকলো। অথবা - আকর্ষনীয় বাচ্চারা যেভাবে বলতে পছন্দ করে - একটি ব্লকচেইন।

ব্লকচেইন অপরিবর্তনীয়: আপনি কোনো ব্লক পরিবর্তন করলে ফিঙ্গারপ্রিন্ট পরিবর্তিত হয়। আর যেহেতু সেই ফিঙ্গারপ্রিন্টটি পরবর্তী ব্লকে অন্তর্ভুক্ত, তাই পরবর্তী ব্লকটিও পরিবর্তন হয়। আর যেহেতু সেই ব্লকের ফিঙ্গারপ্রিন্টটি... আচ্ছা, আপনি বুঝতে পেয়েছেন। আপনি একটি ডমিনো প্রভাবের মধ্যে পৌঁছাবেন যেখানে যেকোনো পরিবর্তনই স্পষ্ট হয়ে ওঠে। সকলের নজর এড়িয়ে আপনি কোনো তথ্য পরিবর্তন করতে পারবেন না।

এটুকুই?

হতাশ? ঠিকই আছে। এই উদ্ভাবনটি গুগল শিটের জটিল কোনো বিকল্প নয়। এটি হল এই যে প্রত্যেকে তাদের কম্পিউটারে ব্লকচেইনের হুবহু কপি তৈরি করতে নেটওয়ার্কে অন্য লোকেদের থেকে ব্লক ডাউনলোড করতে পারে। আগে আমাদের উল্লেখ করা সফ্টওয়্যারটি এটি কাজটিই করে।

ধরুন আপনি ও আপনার বন্ধু অ্যালিস, বব, ক্যারল ও ড্যান সফ্টওয়্যারটি চালাচ্ছেন। আপনি বলতে পারেন "আমি ববকে পাঁচটি কয়েন পাঠাতে চাই।" ফলে আপনি অন্য সবাইকে সেই নির্দেশ পাঠালেন, কিন্তু কয়েনগুলো তাৎক্ষণিক ববকে পাঠানো হয় না।

একই সময়ে ক্যারল এলিসকে পাঁচটি কয়েন পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিতে পারে। তিনি নেটওয়ার্কে তার নির্দেশনাও পাঠান। যেকোনো সময়, একজন অংশগ্রহণকারী একটি ব্লক তৈরি করতে পেন্ডিং থাকা নির্দেশাবলী সংগ্রহ করতে পারেন।

যেকেউ যদি একটি ব্লক তৈরি করতে পারে তাহলে প্রতারণা থেকে কী তাদেরকে আটকাবে?

"বব আমাকে এক মিলিয়ন কয়েন দেয়।" এর মত একটি ব্লক তৈরি করা আপনার কাছে খুবই আকর্ষনীয় হতে পারে। অথবা আপনার নিজের নয় এমন ফান্ড দিয়ে লেনদেন করে ক্যারল থেকে ল্যাম্বরগিনি ও পশমী কোট কেনা শুরু করা।

আচ্ছা, এটি ঠিক এভাবে কাজ করে না। কিছু ক্রিপ্টোগ্রাফি, গেম থিওরি ও কনসেনসাস অ্যালগরিদম নামক কিছুর কারণে, সিস্টেম আপনাকে সেই ফান্ড খরচ করতে বাধা দেয় যা আপনি ব্যয় করতে পারবেন না।

আপনি কি ইতোমধ্যেই এগুলো সব জানেন আর কিভাবে ট্রেড বা বিনিয়োগ করতে হয় তা শিখতে চান? তাহলে পরবর্তী ধাপ দেখা যাক।

Trading

ট্রেডিং

আপনি হয়ত শুনে থাকবেন যে, ব্লকচেইন ও ক্রিপ্টোকারেন্সিগুলো ইতোমধ্যেই বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়েছে। নিঃসন্দেহে, বর্তমানের সবচেয়ে বড় ব্যবহারের ক্ষেত্রটি হচ্ছে স্পেকুলেশন।

ট্রেডিং সাধারণত মুনাফা উৎপন্ন করার জন্য একটি স্বল্পমেয়াদী পদ্ধতিকে বোঝায়। ট্রেডাররা সব সময় পজিশনে প্রবেশ ও তার থেকে বের হয়ে যেতে পারে। কিন্তু কখন প্রবেশ করতে হবে আর কখন বের হতে হবে তা তারা কিভাবে জানে?

ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেট বোঝার সবচেয়ে প্রচলিত উপায়গুলোর মধ্যে একটি হল কারিগরি বিশ্লেষণ (TA) নামক একটি পদ্ধতি। যে বেটগুলোর লাভ হবার ভালো সুযোগ রয়েছে সেগুলোকে খুঁজে বের করার জন্য কারিগরি বিশ্লেষকরা মূল্যের ইতিহাস, চার্ট ও অন্যান্য ধরণের মার্কেটের ডেটা দেখেন।

আপনি অবিলম্বে শুরু করার জন্য আপনি নিশ্চই অধীর হয়ে আছেন। আর প্রযুক্তিগতভাবে, আপনি তা করতে সক্ষম। এটা এতটাই সহজ! কিন্তু, অন্বেষণযোগ্য অধিকাংশ জিনিসের মতো, ট্রেড করা কঠিন! যেসব বিষয়ক আপনার মনে রাখতে হবে সেগুলো নিয়ে কথা বলতে আমাদের অনেক সময় লাগবে।

চার্ট আয়ত্তের বিশেষ নৈপুণ্য শিখুন!

আপনার শুরু করার জন্য আমাদের কিছু নিবন্ধ রয়েছে:

সৌভাগ্যক্রমে, আমরা নতুন ক্রিপ্টো ট্রেডারদের জন্যে একটি বিস্তৃত নির্দেশিকাও তৈরি করেছি! এটিতে ক্রিপ্টো ট্রেডিং সম্পর্কে আপনার যা জানা দরকার তার প্রায় সবকিছুই (সম্ভবত আরো বেশি) রয়েছে:

ভোর পাঁচটায় ঘুম থেকে ওঠার পরে যদি একবার আপনি সেই নিবন্ধটি উদ্ধৃত করতে পারেন তাহলে আপনি সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়গুলোতে এগোতে পারেন:

Investing

বিনিয়োগ করা

বিনিয়োগকারীরা কোনো বিনিয়োগের মৌলিক বিষয়ের উপর ভিত্তি করে দীর্ঘমেয়াদী বেটের খোঁজ করেন। যেমন কোনো কোম্পানি কেমন লাভ করছে। যদিও ক্রিপ্টোকারেন্সি একটি নতুন ও ইউনিক ধরণের অ্যাসেট তবুও সেগুলোকেও একই লেন্সের মাধ্যমে দেখা যেতে পারে।

অনেক বিটকয়েন বিনিয়োগকারী "HODL" দর্শন অনুসরণ করেন। এর মানে হল যে তারা বিটকয়েনের সাফল্যে এতটাই গভীরভাবে বিশ্বাস করে যে তারা দীর্ঘ সময়ের জন্য বিক্রি করতে চান না। কিন্তু তাদের মুখের কথাই গ্রহণ করবেন না! আমাদের বিস্তৃত বিটকয়েন নির্দেশিকা পড়ুন ও নিজের জন্য সিদ্ধান্ত নিন।
পড়ার পরে আপনি সিদ্ধান্ত নিতে পারেন যে আপনি একজন বিটকয়েন HODLer হতে চান। সেক্ষেত্রে আপনি মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে তা হয়ে যেতে পারেন। কেবল ক্রিপ্টো ক্রয় করুন পেজে যান ও নির্দেশাবলী অনুসরণ করুন।

অনবোর্ডিং প্রক্রিয়া মসৃণ ও দ্রুত। আপনাকে বড়সড় পরিমাণে নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে তাও নয়। আপনি 15 ডলারের মতো কম পরিমাণ দিয়ে শুরু করতে পারেন! সুতরাং, ক্রিপ্টো বিনিয়োগের সাথে সংশ্লিষ্ট কিছু মনের খোরাক কী কী?

ক্রিপ্টোতে বিনিয়োগ 101

আপনি যদি ক্রিপ্টোকারেন্সিতে বিনিয়োগ করতে চান তাহলে এই নিবন্ধগুলো আপনাকে শুরু করতে সাহায্য করবে:

Passive Income

পরোক্ষ আয়

এখন পর্যন্ত, আমরা ট্রেডিং ও বিনিয়োগ সম্পর্কে কথা বলেছি। এই পদ্ধতিগুলোর জন্য সাধারণত অনেক সময় প্রয়োজন হয় যা সবার নেই। আপনি যদি সেসকল ব্যস্ত কিন্তু দক্ষ ব্যক্তিদের একজন হয়ে থাকেন তাহলে আপনার জন্য আমাদের কাছে আরো কিছু বিকল্প রয়েছে।

সর্বকালের অন্যতম সফল বিনিয়োগকারীদের মধ্যে অন্যতম ওয়ারেন বাফেট যেমনটি বলেছেন: "ঘুমানোর সময় অর্থোপার্জনের কোনো উপায় যদি আপনি খুঁজে বের করতে না পারেন তাহলে মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কাজ রে যাবেন।"

সুখবর, ক্রিপ্টোকারেন্সি বিশ্ব পরোক্ষ আয় করার অনেক সুযোগ দেয়। মূলত আপনি আপনার ক্রিপ্টো হোল্ডিং ব্যবহার করে আরো ক্রিপ্টো তৈরি করতে পারেন!

তাহলে কেন সবাই এটি করছে না? তারা সম্ভবত জানেন না। কিন্তু এখন আপনি জেনে গেলেন!

পরোক্ষ আয় করার একটি উপায় হল নিরাপদে আপনার হোল্ডিংগুলো অন্য লোকেদের কাছে ধার দেওয়া। আপনার ফান্ড ধার করার সুযোগের বিনিময়ে তারা আপনাকে সুদ দিবেন।

এছাড়া, আপনি বিটকয়েন মাইনিং সম্পর্কে শুনে থাকবেন। এটির মধ্যে সাধারণত বিটকয়েন পুরষ্কারের জন্য কর্মরত উচ্চরব করতে থাকা ও ব্যয়বহুল মেশিন সংশ্লিষ্ট। তবে কোনো ক্রিপ্টোকারেন্সি নেটওয়ার্ক নিশ্চিত করার অন্যান্য উপায়ও রয়েছে। এর মধ্যে একটি হল স্ট্যাকিং নামক একটি প্রক্রিয়া। আর স্পয়লার অ্যালার্ট হল, এতে মাংস জড়িত নেই।

স্ট্যাকিং কী?

সহজ ভাষায়, স্ট্যাকিং মানে কয়েন লক করার জন্য পুরস্কার পাওয়া। সুতরাং, আপনি যদি এমন কোনো মুদ্রায় বিনিয়োগ করেন যা স্ট্যাকিং সমর্থন করে, আপনি সময়ের সাথে সাথে একটি বড় হোল্ডিং তৈরি করতে পারেন। এই নিবন্ধগুলো সম্পর্কে আরো পড়ুন:

Privacy and Security

গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা

আমরা একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি ওয়েবসাইট, কিন্তু আমরা গোপনীয়তা ও নিরাপত্তা বিষয়ও ❤️ করি – আর আপনারও করা উচিত!

ডিজিটাল যুগ সাথে করে কিছু গুরুতর উদ্ভাবন নিয়ে এসেছে। দরজা বন্ধ করতে ভুলে গেলে আপনার ফ্রিজ আপনাকে টেক্সট করতে পারে, আপনি একটি স্মার্টফোন অ্যাপ থেকে আপনার গাড়িকে ডেকে আনতে পারেন এবং পরিস্থিতি দেখে মনে হচ্ছে আপনি শীঘ্রই ড্রোনের মাধ্যমে মেইল পাবেন।

দুর্ভাগ্যবশত, আপনার সংবেদনশীল ডেটা চুরি করার উপায়ও উদ্ভাবিত হয়েছে – এমন কিছু যা আমরা আমাদের অজান্তেই প্রচুর পরিমাণে তৈরি করি। আপনি র‍্যানসমওয়্যার মোকাবেলা করার সেরা উপায় জানেন? অথবা জানেন আপনি কোথা থেকে ব্রাউজ করছেন তা খুঁজে বের করা থেকে ওয়েবসাইটগুলোকে বাধা দেয়ার পদক্ষেপগুলো নিতে?
up to speed

ঠিক আছে, এই বিষয়ে এইটুকুই আমাদের হালদাগাদকৃত তথ্য!

আশা করি আপনি ক্রিপ্টোকারেন্সি ও এটি কিভাবে কাজ করে সে সম্পর্কে এই নির্দেশিকা থেকে ভাল বোঝাপড়া পাবেন। Binance অ্যাকাডেমিতে, আপনি শিক্ষানবিশদের জন্য নির্দেশিকা থেকে শুরু করে আরো উন্নত বিষয়ের ওভারভিউ পর্যন্ত বিভিন্ন ধরনের নিবন্ধ পাবেন।

আপনি দেখা কোনো বিষয়ে প্রশ্ন রয়েছে? কমিউনিট থেকে সেগুলোর উত্তর পেতে আস্ক অ্যাকাডেমিতে-তে যান।