টেকনিক্যাল বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 12টি জনপ্রিয় ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন
সুচিপত্র
বিষয়বস্তু
ভূমিকা
কিভাবে ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন ব্যবহার করবেন
বুলিশ রিভার্সাল প্যাটার্ন
বিয়ারিশ রিভার্সাল প্যাটার্ন
কন্টিনিউয়েশন প্যাটার্ন
ডজি
মূল্যের পার্থক্যের উপর ভিত্তি করে ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন
শেষ কথা
টেকনিক্যাল বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 12টি জনপ্রিয় ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন
হোম
নিবন্ধ
টেকনিক্যাল বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 12টি জনপ্রিয় ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন

টেকনিক্যাল বিশ্লেষণে ব্যবহৃত 12টি জনপ্রিয় ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন

প্রকাশিত হয়েছে Feb 24, 2020আপডেট হয়েছে Nov 11, 2022
8m

বিষয়বস্তু


ভূমিকা

ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট হল মূল্যের প্যাটার্ন বিশ্লেষণ করার জন্য সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত টেকনিক্যাল ট্যুলগুলোর মধ্যে একটি। মূল্য কোন দিকে যাচ্ছে তা নির্দেশ করতে প্যাটার্ন খুঁজে বের করতে বহু শতাব্দী ধরে ট্রেডার ও বিনিয়োগকারীগণ শতাব্দী ধরে সেগুলো ব্যবহার করে আসছেন৷ এই নিবন্ধতে সচিত্র উদাহরণ সহ সবচেয়ে সুপরিচিত ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্নগুলো আলোচনা করা হবে।

আপনি যদি প্রথমে ক্যান্ডেলস্টিক চার্ট সম্পর্কে ধারণা পেতে চান তবে ক্যান্ডেলস্টিক চার্টের ব্যাপারে শিক্ষানবিসদের নির্দেশিকা দেখুন।


ক্যান্ডেলস্টিক চিট শীট


কিভাবে ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন ব্যবহার করবেন

এমন অসংখ্য ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন রয়েছে যা ট্রেডারগণ কোনো চার্টে আগ্রহের ক্ষেত্র চিহ্নিত করতে ব্যবহার করতে পারেন। এগুলো ডে ট্রেডিং, সুইং ট্রেডিং এবং এমনকি দীর্ঘমেয়াদী পজিশন ট্রেডিংয়ের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে। যদিও কিছু কিছু ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন ক্রেতা ও বিক্রেতার মধ্যে ভারসাম্য সম্পর্কে ধারণা প্রদান করতে পারে, তবে অন্যগুলো বিপরীত অবস্থা, ধারাবাহিকতা বা সিদ্ধান্তহীনতার ইঙ্গিত দিতে পারে।

এটা মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্নগুলো নিজে কোনো ক্রয় বা বিক্রয়ের সংকেত নয়। বরং এগুলো হল বাজারের কাঠামো এবং আসন্ন সুযোগের সম্ভাব্য ইঙ্গিত দেখার একটি উপায়। ফলে আলোচ্য প্রেক্ষাপটে প্যাটার্নগুলো দেখতে এটি সবসময়ই কার্যকর। এটি চার্টে টেকনিক্যাল প্যাটার্নের প্রেক্ষাপট হতে পারে, তবে বিস্তৃত বাজারের পরিবেশ এবং অন্যান্য নিয়ামকও হতে পারে।

সংক্ষেপে, বাজার বিশ্লেষণের অন্য কোনো ট্যুলের মতো, অন্যান্য কৌশলের সাথে একত্রে ব্যবহার করা হলে ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্নগুলো সবচেয়ে কার্যকর। এর মধ্যে  Wyckoff পদ্ধতি,  এলিয়ট ওয়েভ থিওরি এবং  ডাউ থিওরি অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে। এতে  টেকনিক্যাল অ্যানালিসিস (TA) এর সূচকগুলোও অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে, যেমন  ট্রেন্ড লাইন,  মুভিং এভারেজ,  রিলেটিভ স্ট্রেংথ ইনডেক্স (RSI),  স্টকাস্টিক RSI,  বলিঞ্জার ব্যান্ড,  ইচিমোকু ক্লাউডস,  প্যারাবোলিক SAR, বা  MACDও থাকতে পারে।


বুলিশ রিভার্সাল প্যাটার্ন

হ্যামার 

নিম্নমুখী প্রবণতার নিচের দিকে একটি লম্বা লোয়ার  উইক সহ একটি ক্যান্ডেলস্টিক, যেখানে নিচের উইকটি বডির আকারের অন্তত দ্বিগুণ।

হ্যামার দেখায় যে যদিও বিক্রির চাপ বেশি ছিল, তবে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা মূল্যকে ওপেন বা শুরুর মূল্যের কাছাকাছি নিয়ে গেছে। হ্যামার লাল বা সবুজ রঙের হতে পারে, কিন্তু সবুজ হ্যামার একটি শক্তিশালী ঊর্ধ্বমুখী প্রতিক্রিয়া নির্দেশ করতে পারে।


বুলিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - হ্যামার


ইনভার্টেড হ্যামার

ইনভার্স হ্যামারও দেখতে ঠিক হ্যামারের মতো হলেও লম্বা উইকটি বডির নিচের দিকে না হয়ে উপরের দিকে থাকে। হ্যামারের মতোই, উপরের উইকটির বডির আকার অন্তত দ্বিগুণ হওয়া উচিত। 

ইনভার্স হ্যামার কোনো নিম্নমুখী প্রবণতার নিচে ঘটে এবং এটি বাজারের প্রবণতার বিপরীত দিকে একটি সম্ভাব্য ঊর্ধ্বমুখী অবস্থা নির্দেশ করতে পারে। উপরের উইকটি দেখায় যে মূল্য তার ক্রমাগত নিম্নমুখী প্রবণতা বন্ধ করেছে, যদিও বিক্রেতারা শেষ পর্যন্ত এটিকে শুরুর মূল্যের কাছাকাছি নামিয়ে আনতে সক্ষম হয়েছে। একইভাবে, ইনভার্স হ্যামার নির্দেশ করতে পারে যে ক্রেতারা শীঘ্রই বাজারের নিয়ন্ত্রণ পেতে পারেন। 


বুলিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - ইনভার্স হ্যামার


থ্রি হোয়াইট সোলজার্স

তিনটি হোয়াইট সোলজার্স প্যাটার্নে তিনটি পরপর সবুজ ক্যান্ডেল থাকে, যেগুলো পূর্বের ক্যান্ডেলের বডির মধ্যে শুরু হয় এবং পূর্বের ক্যান্ডেলের উচ্চতা ছাড়িয়ে একটি স্তরে বন্ধ হয়। 

আদর্শভাবে, এই ক্যান্ডেলস্টিকগুলোতে নিচের দিকে লম্বা উইক থাকা উচিত নয়, যা ইঙ্গিত করে যে ক্রমাগত ক্রয়ের চাপ মূল্য বৃদ্ধি করছে। ক্যান্ডেলগুলোর আকার ও উইকগুলোর দৈর্ঘ্য অব্যাহত থাকার বা সম্ভাব্য বিপরীত প্রবণতার সম্ভাবনা বিচার করতে ব্যবহার করা যেতে পারে।


বুলিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - থ্রি হোয়াইট সোলজার্স


বুলিশ হারামি

বুলিশ হারামি হল একটি লম্বা লাল ক্যান্ডেলের পরে একটি ছোট সবুজ ক্যান্ডেল, যা সম্পূর্ণরূপে পূর্বের ক্যান্ডেলের বডির মধ্যে বিস্তৃত থাকে।

বুলিশ হারামি দুই বা ততোধিক দিন ধরে প্রকাশিত হতে পারে, এবং এটি এমন একটি প্যাটার্ন যা নির্দেশ করে যে বিক্রির গতি কমছে এবং শেষ হতে পারে।


বুলিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - বুলিশ হারামি


ক্রিপ্টোকারেন্সিতে শুরু করতে চাইছেন? Binance-এ বিটকয়েন ক্রয় করুন!


বিয়ারিশ রিভার্সাল প্যাটার্ন

হ্যাংগিং ম্যান

হ্যাংগিং ম্যান হল নিম্নমুখী প্রবণতার একটি হ্যামারের সমতুল্য। এটি সাধারণত কোনো ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার শেষে একটি ছোট বডি এবং নিচের দিকে একটি লম্বা উইক দিয়ে তৈরি হয়। 

নিচের উইকটি ইঙ্গিত করে যে বড় ধরণের একটি বিক্রি সম্পন্ন হয়েছে, কিন্তু ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা নিয়ন্ত্রণ ফিরিয়ে নিতে এবং দাম বাড়াতে সক্ষম হয়েছিল। এটি মাথায় রেখে, একটি দীর্ঘমেয়াদী ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার পরে, বিক্রির বিষয়টি একটি সতর্কতা হিসেবে কাজ করতে পারে যে শীঘ্রই মার্কেটের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা নিয়ন্ত্রণ হারাবে।


বিয়ারিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - হ্যাঙ্গিং ম্যান


শুটিং স্টার

শুটিং স্টারে উপরের দিকে লম্বা উইক এবং নিচে ছোট বা কোনো উইক ছাড়া হয় এবং এর বডি ছোট হয় এবং সাধারণত নিচের কাছাকাছি থাকে। শুটিং স্টারের আকৃতি ইনভার্স হ্যামারের মতোই কিন্তু এটি একটি ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার শেষে গঠিত হয়।

এটি ইঙ্গিত করে যে, বাজার একটি উচ্চ অবস্থানে পৌঁছেছে, কিন্তু তারপরে বিক্রেতারা নিয়ন্ত্রণ নিয়েছেন এবং মূল্য আবার নিচে নামিয়েছেন। কিছু কিছু ট্রেডার প্যাটার্ন নিশ্চিতকরণের জন্য পরবর্তী কয়েকটি ক্যান্ডেল তৈরি হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পছন্দ করেন।


বিয়ারিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - শুটিং স্টার


থ্রি ব্ল্যাক ক্রো

তিনটি কালো ক্রো প্যাটার্নে তিনটি পরপর লাল ক্যান্ডেল থাকে, যেগুলো পূর্বের ক্যান্ডেলের বডির মধ্যে শুরু হয় এবং পূর্বের ক্যান্ডেলের নিম্নসীমা ছাড়িয়ে একটি স্তরে বন্ধ হয়।

তিন হোয়াইট সোলজার্সের সমতুল্য বিয়ারিশ। আদর্শভাবে, এই ক্যান্ডেলস্টিকগুলোতে উপরের দিকে লম্বা উইক থাকা উচিত নয়, যা ইঙ্গিত করে যে ক্রমাগত বিক্রয়ের চাপ মূল্য হ্রাস করছে। ক্যান্ডেলের আকার এবং উইকের দৈর্ঘ্য অব্যাহত থাকার সম্ভাবনা বিচার করতে ব্যবহার করা যেতে পারে।


বিয়ারিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - থ্রি ব্ল্যাক ক্রো


বিয়ারিশ হারামি

বিয়ারিশ হারামি হল একটি লম্বা সবুজ ক্যান্ডেলের পরে একটি ছোট লাল ক্যান্ডেল, যা সম্পূর্ণরূপে পূর্বের ক্যান্ডেলের বডির মধ্যে বিস্তৃত থাকে।

বিয়ারিশ হারামি দুই বা ততোধিক দিনের ধরে তৈরি হতে পারে, যা কোনো ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার শেষে দেখা যায় এবং নির্দেশ করতে পারে যে ক্রয়ের চাপ হ্রাস পাচ্ছে।


বিয়ারিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - বিয়ারিশ হারামি


ডার্ক ক্লাউড কভার

ডার্ক ক্লাউড কভার প্যাটার্নে একটি লাল ক্যান্ডেল থাকে, যা পূর্ববর্তী সবুজ ক্যান্ডেল যেখানে বন্ধ হয়েছে তার উপরে শুরু হয় কিন্তু তারপর সেই ক্যান্ডেলের মধ্যবিন্দুর নিচে বন্ধ হয়।

এক্ষেত্রে প্রায়শই উচ্চ  ভলিউম হতে পারে, যা ইঙ্গিত করে যে বাজারের গতিবিধি ঊর্ধ্বমুখী থেকে নিম্নমুখী হতে যাচ্ছে। প্যাটার্ন নিশ্চিত করার জন্য ট্রেডাররা তৃতীয় লাল ক্যান্ডেলের জন্য অপেক্ষা করতে পারেন।


বিয়ারিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - ডার্ক ক্লাউড কভার


কন্টিনিউয়েশন প্যাটার্ন

রাইজিং থ্রি মেথডস

এই প্যাটার্নটি একটি ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় ঘটে, যেখানে ছোট শরীর সহ পরপর তিনটি লাল ক্যান্ডেল ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতায় এগিয়ে যায়। আদর্শভাবে, লাল ক্যান্ডেলগুলো পূর্ববর্তী ক্যান্ডেলস্টিকের সীমা অতিক্রম করা উচিত নয়। 

একটি বড় বডি সহ একটি সবুজ ক্যান্ডেল দিয়ে ধারাবাহিকতা নিশ্চিত হয়, যা নির্দেশ করে যে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতার দিকের নিয়ন্ত্রণে ফিরে এসেছে।


কন্টিনিউয়েশন ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - ফলিং থ্রি মেথডস


ফলিং থ্রি মেথডস

ক্রমবর্ধমান তিনটি পদ্ধতির বিপরীত পদ্ধতিটি একটি নিম্নমুখী প্রবণতার ধারাবাহিকতা নির্দেশ করে।


কন্টিনিউয়েশন ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - ফলিং থ্রি মেথডস


ডজি

যখন শুধু ও শেষের মূল্য একই থাকে (বা একে অপরের খুব কাছাকাছি হয়) তবে একটি ডজি গঠন করে। মূল্যটি শুরুর মূল্যের উপরে ও নিচে যেতে পারে, তবে শেষ পর্যন্ত শুরুর সমান থাকে বা কাছাকাছি এসে বন্ধ হয়। বাস্তবে, ডজি ক্রয় ও বিক্রয় চাহিদার মধ্যে একটি সিদ্ধান্তহীনতার বিষয় নির্দেশ করতে পারে। তবুও, কোনো ডজির ব্যাখ্যা প্রেক্ষাপটের উপর খুবই নির্ভরশীল।

শুরু/শেষের লাইনটি কোথায় পড়ে তার উপর নির্ভর করে, একটি ডজিকে নিম্নলিখিতভাবে বর্ণনা করা যেতে পারে:


গ্রেভস্টোন ডজি – উপরের দিকে একটি লম্বা উইক সহ বিয়ারিশ রিভার্সাল ক্যান্ডেল এবং শুরু/শেষ নিম্ন অবস্থানের কাছাকাছি থাকে। 


ডজি ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - গ্রেভস্টোন ডজি


লং-লেগড ডজি - নিম্ন এবং ঊর্ধ্ব উভয় উইক সহ সিদ্ধান্তহীন ক্যান্ডেল এবং শুরু/শেষের মূল্য মধ্যবিন্দুর কাছাকাছি হয়।


ডজি ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - লং লেগড ডজি


ড্রাগনফ্লাই ডজি – নিচের দিকে লম্বা উইক সহ ঊর্ধ্বমুখী বা নিম্নমুখী ক্যান্ডেল (প্রসঙ্গের উপর নির্ভর করে) এবং ঊর্ধ্ব অবস্থানের কাছাকাছি শুরু/শেষ হয়।


ডজি ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন - ড্রাগনফ্লাই ডজি


ডজি এর মূল সংজ্ঞা অনুযায়ী, শুরু ও শেষ হুবহু একই হতে হবে। কিন্তু, যদি শুরু ও শেষ একই না হয়ে একে অপরের খুব কাছাকাছি হলে কী হবে? একে স্পিনিং টপ বলা হয়। তবে, যেহেতু ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেট খুব অস্থিতিশীল হতে পারে, তাই একটি সঠিক ডজি খুবই বিরল। বাস্তবে, স্পিনিং টপ প্রায়শই ডজির সাথে বিনিময়যোগ্যভাবে ব্যবহৃত হয়।


মূল্যের পার্থক্যের উপর ভিত্তি করে ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন

অনেক ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন রয়েছে যেগুলো মূল্যের ব্যবধান ব্যবহার করে থাকে। যখন কোনো আর্থিক সম্পদ তার পূর্ববর্তী সমাপনী মূল্যের উপরে বা নিচে শুরু হয় তখন তা দুটি ক্যান্ডেলস্টিকের মধ্যে একটি ব্যবধান তৈরি করে। যেহেতু ক্রিপ্টোকারেন্সি মার্কেটগুলোতে চব্বিশ ঘন্টাই ট্রেড হয়, তাই এই ধরণের মূল্যের ব্যবধানের উপর ভিত্তি করে কোনো প্যাটার্ন উপস্থিত নেই। তা সত্ত্বেও, তখনও  অ-তরল বাজারে মূল্যের ব্যবধান ঘটতে পারে। তবে, যেহেতু সেগুলো প্রধানত স্বল্প তারল্য এবং উচ্চ  বিড-আস্কের মধ্যে ব্যবধানের কারণে ঘটে, তাই সেগুলো কার্যকরী প্যাটার্ন হিসেবে কার্যকর নাও হতে পারে৷


শেষ কথা

ক্যান্ডেলস্টিক প্যাটার্ন সম্পর্কে ন্যূনতম জ্ঞান রাখা যেকোনো ট্রেডারের জন্যই অত্যাবশ্যকীয়, এমনকি তারা তাদের ট্রেডিং কৌশলে সরাসরি সেগুলো অন্তর্ভুক্ত না করলেও।

যদিও বাজার বিশ্লেষণের জন্য সেগুলো নিঃসন্দেহে কার্যকর হতে পারে, তবে এটি মনে রাখা গুরুত্বপূর্ণ যে সেগুলোর কোনো বৈজ্ঞানিক নীতি বা আইনগত ভিত্তি নেই৷ বরং সেগুলো ক্রয় এবং বিক্রয় শক্তিগুলোকে বোঝায় এবং সামনে তুলে ধরে, যা শেষ পর্যন্ত বাজারকে চালিত করে।