ক্রিপ্টো কালেক্টিবলস এবং নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT) এর একটি নির্দেশিকা
সুচিপত্র
ভূমিকা
নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT) কী?
NFT কিভাবে কাজ করে?
NFT কী জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে?
আমি কিভাবে NFT তৈরি করবো?
NFT কিভাবে ক্রয় করতে হয়?
CryptoKitty ও ইথিরিয়াম এর গল্প 
NFT ও ক্রিপ্টো কালেক্টিবল ব্যবহার করা জনপ্রিয় প্রজেক্টসমূহ
শেষ কথা
ক্রিপ্টো কালেক্টিবলস এবং নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT) এর একটি নির্দেশিকা
হোম
নিবন্ধ
ক্রিপ্টো কালেক্টিবলস এবং নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT) এর একটি নির্দেশিকা

ক্রিপ্টো কালেক্টিবলস এবং নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT) এর একটি নির্দেশিকা

প্রকাশিত হয়েছে Feb 26, 2020আপডেট হয়েছে Oct 19, 2022
7m

ভূমিকা

বিটকয়েনের সৃষ্টি আস্থাবিহীন, ডিজিটাল ঘাটতির ধারণার সূচনা করে। এর আগে, ডিজিটালভাবে কোনো কিছু কপি করার খরচ ছিল অত্যন্ত নগণ্য। ব্লকচেইন প্রযুক্তির আবির্ভাবের সাথে সাথে, প্রোগ্রামেবল ডিজিটাল ঘাটতি সম্ভব হয়েছে – যা ডিজিটাল দুনিয়াকে বাস্তব দুনিয়ার সাথে সম্পর্কিত করতে আমাদের সুযোগ দিয়েছে।

নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT), যেটিকে প্রায়শই ক্রিপ্টো কালেক্টিবল হিসেবে উল্লেখ করা হয়, এই ধারণাটিকে বিস্তৃত করেছে। প্রতিটি টোকেন সমান হওয়া ক্রিপ্টোকারেন্সির বিপরীতে, নন-ফাঞ্জিবল টোকেনগুলো ইউনিক ও পরিমাণে সীমিত। 

নতুন, ব্লকচেইন-চালিত ডিজিটাল অর্থনীতিতে NFT হলো একটি মূল বিল্ডিং ব্লক। গেমিং, ডিজিটাল পরিচিতি, লাইসেন্সিং, সার্টিফিকেট ও ফাইন আর্টসহ অনেকগুলো প্রজেক্ট NFT দিয়ে বিভিন্ন ব্যবহার ক্ষেত্র পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছে। এছাড়াও, NFT এমনকি উচ্চ-মূল্যের আইটেমগুলোর ভগ্নাংশ পরিমাণ মালিকানার সুযোগও প্রদান করে। 

NFT ইস্যু করা অনেক সহজ হয়ে গেছে এবং আমরা প্রতিদিনই ক্রমবর্ধমান পরিমাণে মিন্ট করা দেখতে পাচ্ছি।  NFT কী, এগুলো কী উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা যেতে পারে এবং CryptoKitty নামে একটি গেম কিভাবে 2017 সালের শেষদিকে ইথিরিয়াম ব্লকচেইনকে জ্যাম করে দিয়েছিল সে বিষয়গুলো সম্পর্কে এই আর্টিকেলটি বিস্তারিত আলোচনা করবে।



নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT) কী?

কোনো নন-ফাঞ্জিবল টোকেন (NFT) হচ্ছে একটি ক্রিপ্টোগ্রাফিক টোকেন যা কোনো ইউনিক অ্যাসেটের প্রতিনিধিত্ব করে। এগুলো পুরোপুরি ডিজিটাল অ্যাসেট বা বাস্তব-পৃথিবীর অ্যাসেটের টোকেন সংস্করণ হতে পারে। NFT একে অপরের সাথে পরিবর্তনযোগ্য না হওয়ায় এগুলো ডিজিটাল দুনিয়ায় সত্যতা ও মালিকানার প্রমাণ হিসেবে কাজ করতে পারে।

ফাঞ্জিবিলিটি এর অর্থ হল কোনো অ্যাসেটের পৃথক একক অ্যাসেট বিনিময়যোগ্য ও বাস্তবে একে অপরের থেকে আলাদা করা যায় না। উদাহরণস্বরূপ, ফিয়াট মুদ্রাগুলো ফাঞ্জিবল কারণ প্রতিটি ইউনিট অন্য কোনো সমতুল্য পৃথক ইউনিটের সাথে বিনিময়যোগ্য। একটি দশ-ডলারে নোট অন্য যেকোনো আসল দশ-ডলার নোটের সাথে বিনিময়যোগ্য। বিনিময়ের মাধ্যম হিসেবে কাজ করার লক্ষ্য রাখে এমন কোনো অ্যাসেটের জন্য এটি অপরিহার্য।

মুদ্রার জন্য ফাঞ্জিবিলিটি একটি কাঙ্ক্ষিত বৈশিষ্ট কারণ এটি বিনামূল্যে বিনিময়কে সক্ষম করে ও তাত্ত্বিকভাবে, প্রতিটি পৃথক ইউনিটের ইতিহাস জানার কোনো উপায় নেই। তবে, কালেক্টিবল আইটেমগুলোর জন্য এটি কোনো উপকারী বৈশিষ্ট্য নয়।

আমরা যদি বিটকয়েনের মতো ডিজিটাল অ্যাসেট তৈরি করতে পারি আর পরিবর্তে প্রতিটি ইউনিটে একটি ইউনিক শনাক্তকারী যোগ করতে পারি তাহলে কী হবে? এটি এগুলোর প্রত্যেকটিকে অন্য সকল ইউনিট থেকে স্বতন্ত্র করে তুলবে (অর্থাৎ, নন-ফাঞ্জিবল)। মূলত, এটিই হল NFT।

crypto stamp nft


NFT কিভাবে কাজ করে?

NFT তৈরি ও ইস্যু করার জন্য বিভিন্ন ফ্রেমওয়ার্ক রয়েছে। এর মধ্যে প্রধানতমটি হল ERC-721, যেটি ইথিরিয়াম ব্লকচেইনে নন-ফাঞ্জিবল অ্যাসেট ইস্যু ও ট্রেডের একটি স্ট্যান্ডার্ড।

আরো সাম্প্রতিক, আরো উন্নত স্ট্যান্ডার্ডটি হল ERC-1155। এটি কোনো একক কন্ট্রাক্টকে ফাঞ্জিবল ও নন-ফাঞ্জিবল উভয় টোকেনই ধারণ করতে সক্ষম করে, যা সম্ভাবনার সম্পূর্ণ নতুন পরিসর উন্মুক্ত করে। NFT ইস্যু করার স্ট্যান্ডার্ড নির্ধারণ উচ্চতর মাত্রার আন্তঃকার্যক্ষমতার সুযোগ দেয়, যেটির উপকার শেষ বিচারে উপভোগ করে ব্যবহারকারীরা। মূলত এর মানে হচ্ছে, ইউনিক অ্যাসেটকে তুলনামূলক সহজে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের মধ্যে ট্রান্সফার করা যাবে। 

Binance স্মার্ট চেইনের (BSC) নিজস্ব NFT স্ট্যান্ডার্ড: BEP-721 ও BEP-1155 রয়েছে। এই দুটি পূর্বে উল্লিখিত ইথিরিয়াম স্ট্যান্ডার্ডগুলোর অনুরূপ কার্যকারিতা প্রদান করে। খরচ ইথিরিয়ামের তুলনায় যথেষ্ট কম হওয়ায় NFT মিন্ট করতে চাওয়া নির্মাতাদের কাছে দুটোই আকর্ষণীয় হয়ে উঠেছে। 

আপনি যদি আপনার NFT-গুলোর সৌন্দর্য সঞ্চয় ও দেখতে চান তাহলে তা আপনি ট্রাস্ট ওয়ালেটে করতে পারেন। অন্যান্য ব্লকচেইন টোকেনের মতোই, আপনার NFT একটি ঠিকানায় থাকবে। এটা লক্ষণীয় যে মালিকের অনুমতি ছাড়াই NFT এর প্রতিলিপি বানানো যাবে না বা ট্রান্সফার করা যাবে না – এমনকি NFT ইস্যুকারী দ্বারাও।

NFT-গুলো Treasureland, BakerySwap, BSC এর Juggerworld ও ইথিরিয়ামের OpenSea-সহ খোলা মার্কেটপ্লেসে লেনদেন করা যেতে পারে। এই মার্কেটগুলো ক্রেতাদেরকে বিক্রেতার সাথে সংযুক্ত করে ও প্রতিটি টোকেনের ইউনিক ভ্যালু রয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই, মার্কেটের সরবরাহ ও চাহিদার প্রতিক্রিয়ায়, NFT-গুলো মূল্য পরিবর্তনের প্রবণতা প্রদর্শন করে। 

কিন্তু এই ধরনের জিনিসের কোনো মূল্য কিভাবে থাকতে পারে? অন্য যেকোনো মূল্যবান আইটেমের মতোই, ভ্যালু বস্তুর অন্তর্নিহিত নয় বরং এটিকে মূল্যবান বলে মনে করে এমন ব্যক্তিদের দ্বারা নির্ধারিত হয়। সংক্ষেপে, মূল্য একটি সম্মিলিত বিশ্বাস। এটি ফিয়াট টাকা, মূল্যবান ধাতু বা কোনো গাড়ি যাই হোক না কেন – এই জিনিসগুলোর মূল্য আছে কারণ মানুষ বিশ্বাস করে যে আছে। এভাবেই প্রতিটি মূল্যবান জিনিস মূল্যবান হয়ে ওঠে, তাহলে ডিজিটাল কালেক্টিবল কেন নয়?


NFT কী জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে?

ইউনিক ডিজিটাল আইটেম ও ক্রিপ্টো-কালেক্টিবল ইস্যু করতে ডিসেন্ট্রালাইজড অ্যাপ্লিকেশন (DApps) কর্তৃক NFT ব্যবহৃত হতে পারে। এই টোকেনগুলো হয় কোনো কালেক্টিবল আইটেম, কোনো বিনিয়োগ পণ্য বা অন্য কিছু হতে পারে।

গেমিং অর্থনীতি নতুন কিছু নয়। আর যেহেতু অনেক অনলাইন গেমেরই ইতোমধ্যে নিজস্ব অর্থনীতি রয়েছে, তাই গেমিং অ্যাসেটের টোকেনাইজ করার জন্য ব্লকচেইন ব্যবহার করা শুধুমাত্র এক ধাপ এগিয়ে নেয়া। প্রকৃতপক্ষে, NFT এর ব্যবহারে অনেক গেমের মুদ্রাস্ফীতির সাধারণ সমস্যার সমাধান বা প্রশমিত হবার সম্ভাবনা রয়েছে।

ভার্চুয়াল ওয়ার্ল্ড সমৃদ্ধ হতে থাকার পরিক্রমায়, NFT এর আরেকটি দারুণ ব্যবহার হল বাস্তব-দুনিয়ার অ্যাসেটের টোকেনকরণ। এই NFT-গুলো বাস্তব-বিশ্বের অ্যাসেটের ভগ্নাংশকে উপস্থাপন করতে পারে যেগুলো কোনো ব্লকচেইনে টোকেন হিসেবে সংরক্ষণ ও ট্রেড করা যাবে। এটি ফাইন আর্ট, রিয়েল এস্টেট, বিরল কালেক্টিবল আইটেম ও আরো অনেক মার্কেটের মত মার্কেটে কিছু প্রয়োজনীয় তারল্যের প্রচলন ঘটাতে পারে অন্যথায় যেগুলোতে উল্লেখযোগ্য তারল্য থাকতো না।

ডিজিটাল পরিচিতি এমন একটি খাত যেটি NFT এর বৈশিষ্ট্য থেকে উপকৃত হতে পারে। ব্লকচেইনে শনাক্তকরণ ও মালিকানার ডেটা সংরক্ষণ করা বিশ্বের বহু মানুষের জন্য গোপনীয়তা ও ডেটা অখণ্ডতা বৃদ্ধি করবে। পাশাপাশি, এই অ্যাসেটগুলোর সহজ ও আস্থাবিহীন ট্রান্সফার বিশ্ব অর্থনীতির প্রতিকূল পরিস্থিতি হ্রাস করতে পারে।


আমি কিভাবে NFT তৈরি করবো?

BSC বা ইথিরিয়াম-এ আপনার নিজস্ব NFT তৈরি করা হল একটি সহজ প্রক্রিয়া যা অসংখ্য প্ল্যাটফর্ম ও NFT এক্সচেঞ্জ অফার করে। শুরু করার জন্য আপনার যা দরকার তা হল আপনার মিন্টিং ফি প্রদানের জন্য কিছু ক্রিপ্টো ও এমন কিছু যা NFT-তে পরিণত করবেন। আপনি কি আপনার NFT ইথিরিয়াম নাকি Binance স্মার্ট চেইনে মিন্ট করবেন সেটিও বেছে নিতে হবে।

ঐতিহ্যগতভাবে ইথিরিয়ামই NFT ও তাদের ডেভলপমেন্টের আবাসস্থল। এখানে ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রচুর ও সুপ্রতিষ্ঠিত NFT কমিউনিটি আছে, তবে লেনদেনের ফি খুবই ব্যয়বহুল। এর ফলে ব্যবহারকারীদের জন্য ছোটখাটো কেনাকাটা, বিক্রয় ও লেনদেন ব্যয়বহুল হয়ে যায়। BSC একটি নতুন ব্লকচেইন হলেও ইতোমধ্যেই এটি NFT মার্কেটে যথেষ্ট সম্ভাবনা প্রদর্শন করেছে। এখানে লেনদেনও অনেক সস্তা।

আপনার নিজের NFT কিভাবে তৈরি করবেন সম্পর্কিত আমাদের নির্দেশিকা আপনাকে আপনার সৃষ্টিগুলোকে নন-ফাঞ্জিবল টোকেনে পরিণত করার প্রক্রিয়া শেখাবে।


NFT কিভাবে ক্রয় করতে হয়?

যেমনটি আমরা আগে উল্লেখ করেছি, NFT মার্কেটপ্লেসগুলো হল প্রথম জায়গা যেখানে আপনি নন-ফাঞ্জিবল টোকেন কিনতে চাইলে খুঁজে দেখতে হবে। কিন্তু শুধু এগুলোই আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য নয়। ক্রেডিট কার্ড বা পেপ্যাল হলেই আপনি NFT কিনতে পারবেন না। প্রক্রিয়াটির জন্য একটি ক্রিপ্টো ওয়ালেট ও কিছু ক্রিপ্টো অপরিহার্য।

Binance স্মার্ট চেইন NFT এর ক্ষেত্রে মূল্য প্রায় সবসময়ই BNB-তে হবে। ইথিরিয়াম NFT সাধারণত ইথের (ETH) ব্যবহার করবে। এই উভয় ক্রিপ্টোকারেন্সিই Binance এক্সচেঞ্জে কিনতে পাওয়া যায়। একবার আপনি আপনার নির্বাচিত ক্রিপ্টো কিনে ফেললে, ফান্ডগুলোকে কোনো ওয়ালেটে ট্রান্সফার করুন যা NFT মার্কেটপ্লেসগুলোর সাথে যোগাযোগ করতে পারে।

ব্রাউজার এক্সটেনশন ওয়ালেটের জন্য বিকল্প হিসেবে Binance চেইন ওয়ালেটমেটামাস্ক ভালো। দুটোই NFT মার্কেটপ্লেসে সংযুক্ত হতে পারে। আপনাকে শুধুমাত্র Binance থেকে আপনার ওয়ালেটে আপনার ক্রিপ্টো ট্রান্সফার করে, মার্কেটপ্লেসের ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনার ওয়ালেটটি সংযুক্ত করতে হবে (যুক্ত হন বাটনটি সাধারণত উপরের ডানদিকের কোণায় থাকে)। জাল বা সন্দেহজনক ওয়েবসাইট থেকে সতর্ক থাকুন। ইউআরএলটি বার বার চেক করুন এবং আপনি যদি এটি প্রায়শই ব্যবহার করেন তাহলে বুকমার্ক করার কথা বিবেচনা করুন।

আপনি যদি মোবাইলের ব্যবহার করার অভিজ্ঞতা পছন্দ করেন, তাহলে ট্রাস্ট ওয়ালেট দেখুন। এটি iOS ও অ্যান্ড্রয়েড উভয়ে প্ল্যাটফর্মের জন্যই উপলভ্য এবং একাধিক ব্লকচেইন সমর্থন করে। ভুলে যাবেন না যে ইথিরিয়াম ও BSC এর সাথে মিথষ্ক্রিয়া ফ্রি নয়! লেনদেন ফি প্রদানের জন্য কিছু অতিরিক্ত ক্রিপ্টো থাকা সবসময়ই কাজে দেয়।


CryptoKitty ও ইথিরিয়াম এর গল্প 

উল্লেখযোগ্য ট্র্যাকশন অর্জনের প্রথম NFT প্রজেক্টগুলোর মধ্যে একটি হল CryptoKitty, এটি ইথিরিয়ামে নির্মিত একটি গেম যা খেলোয়াড়দের ভার্চুয়াল ক্যাট সংগ্রহ, বংশবৃদ্ধি ও বিনিময় করতে দেয়।

Cryptokitty


প্রতিটি CryptoKitty এর বয়স, জাত বা রঙের মতো বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের সংমিশ্রণ থাকতে পারে। এই রকমভাবে এগুলোর প্রতিটিই ইউনিক এবং একে অপরের সাথে এগুলো বিনিময় করা যায় না। এছাড়াও, এগুলো অবিভাজ্য, যার অর্থ হল একটি CryptoKitty টোকেনকে ছোট অংশে ভাগ করার কোনো উপায় নেই (যেমন ইথেরের জন্য gwei)।

উচ্চ কার্যকলাপের কারণে ইথিরিয়াম ব্লকচেইনে জট তৈরি করায় CryptoKitty এর কিছু কুখ্যাতি হয়েছিল। ডিসেম্বর 2017-এ ইথিরিয়ামের ট্রাফিকের আনুমানিক 25% এই কালেক্টিবল ক্যাটগুলোর সাথে সংশ্লিষ্ট ছিল। এটা স্পষ্ট যে গেমটি ইথিরিয়াম নেটওয়ার্কে একটি বড় প্রভাব ফেলেছিল, তবে ইনিশিয়াল কয়েন অফারিং (ICO) বুমসহ অন্যান্য কারণগুলোও এতে অবদান রেখেছে।

CryptoKitty ব্লকচেইন ব্যবহার ক্ষেত্র এর একটি প্রাথমিক উদাহরণ যা কোনো মুদ্রা নয়, কিন্তু বিনোদন ও অবসরের জন্য ব্যবহৃত হয় এমন কিছু। সম্মিলিতভাবে, এই ভার্চুয়াল ক্যাটগুলো মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার ট্রান্সফার করেছে এবং কিছু বিরল ইউনিট প্রতিটি শত শত হাজার ডলারে বিক্রয় হয়েছে।


NFT ও ক্রিপ্টো কালেক্টিবল ব্যবহার করা জনপ্রিয় প্রজেক্টসমূহ

ভিন্ন ভিন্ন বহু প্রজেক্ট ইতোমধ্যেই কালেক্টিবল ও ট্রেডযোগ্য আইটেম হিসেবে NFT ব্যবহার করে। চলুন সবচেয়ে জনপ্রিয় সমাহার দেখা যাক।


Decentraland

Decentraland হল একটি ডিসেন্ট্রালাইজড ভার্চুয়াল রিয়েলিটি ওয়ার্ল্ড যেখানে খেলোয়াড়রা ভার্চুয়াল ল্যান্ড ও অন্যান্য ইন-গেম NFT আইটেমের মালিক হতে পারে ও বিনিময় করতে পারে। Cryptovoxels অনুরূপ একটি খেলা যেখানে খেলোয়াড়রা ভার্চুয়াল সম্পত্তি তৈরি, ডেভলপ ও বিনিময় করতে পারে।

decentraland-img


PancakeSwap

ভলিউম অনুসারে PancakeSwap হল BSC এর সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত স্বয়ংক্রিয় মার্কেট মেকার এবং এটির সবচেয়ে জনপ্রিয় NFT এর মধ্যে একটি রয়েছে। প্রজেক্টটি উপহার ও প্রতিযোগিতায় প্ল্যাটফর্মের ব্যবহারকারীদের জন্য কালেক্টিবল খরগোশ ছাড়ে। কিছু সম্পূর্ণভাবেই আলংকারিক এবং অন্যগুলো প্ল্যাটফর্মের নেটিভ টোকেন CAKE এর সাথে বিনিময়যোগ্য।

pancakeswap-img


Gods Unchained

Gods Unchained হল একটি ডিজিটাল কালেক্টিবল কার্ড গেম যেখানে কার্ডগুলো ব্লকচেইনে NFT হিসেবে ইস্যু করা হয়। প্রতিটি ডিজিটাল কার্ড ইউনিক হওয়ায়, খেলোয়াড়রা কার্ডগুলোর মালিকানা এমনভাবেই দখল ও ট্রেড করতে পারে যেন এগুলো ফিজিক্যাল কার্ড।

Opensea-তে Gods unchained কার্ড Greed Banestrider


CryptoPunks

CryptoPunks ডিজিটাল আর্টের কালেক্টিবল পিস, যেগুলোর প্রতিটি একটি ইউনিক, 8-বিট-স্টাইলের NFT ক্যারেক্টারের মত করে তুলে ধরে। প্রজেক্টটি ERC-721 টোকেন স্ট্যান্ডার্ডের অনুপ্রেরণা ছিল ও ক্রিপ্টো আর্ট উন্মাদনের প্রথম উদাহরণগুলোর মধ্যে একটি ছিল। সেই সময় থেকে CryptoPunks এখন পর্যন্ত মিলিয়ন মিলিয়ন ডলারে বিক্রয় হয়েছে ও বিশ্বজুড়ে একই ধরণের অনেক প্রজেক্টকে অনুপ্রাণিত করেছে।

cryptopunks


Binance কালেক্টিবল ও NFT

বিভিন্ন গিভআওয়ে এবং Binance কার্যকলাপের উপর ভিত্তি করে Binance তাদের ব্যবহারকারীদের NFT উপহার দেয়। ট্রেডিং ফিউচার থেকে শুরু করে পিৎজা ডে NFT পর্যন্ত, আপনি নিয়মিত ট্রেডযোগ্য Binance কালেক্টিবল পাওয়ার সুযোগ নিতে পারেন।

binance-collectibles


Binance কালেক্টিবল এটির আরেকটি উদাহরণ। এগুলো Enjin এর সাথে সহযোগিতায় ইস্যু করা NFT। এগুলোর কোনোটি যদি পেতে চান, তাহলে টুইটারে Binance অনুসরণ করতে ও পরবর্তী গিভআওয়েগুলো খুঁজতে ভুলবেন না! আপনি যদি কোনো NFT গিভঅ্যাওয়েতে অংশগ্রহণ করতে চান তাহলে এই ছোট ধাপগুলো অনুসরণ করুন:

1. এমন কোনো ওয়ালেট ডাউনলোড করুন যা ইথিরিয়াম সমর্থন করে, যেমন ট্রাস্ট ওয়ালেট। 

2. আপনার ইথিরিয়াম ঠিকানা কপি করে গিভআওয়ের নিয়ম অনুযায়ী সেটি দিন। এটি আপনাকে একটি ফর্মের মাধ্যমে জমা দিতে বা কোনো টুইটারে মন্তব্য হিসেবে করতে হতে পারে। প্রবেশ করার জন্য আপনাকে কী করতে হবে তা জানতে নিয়মগুলো বার বার চেক করতে ভুলবেন না।

3. আপনি যদি কোনো NFT জিতে থাকেন ও এটি বিতরণ করা হয়ে থাকে, তাহলে আপনি এটি ট্রাস্ট ওয়ালেটের কালেক্টিবল ট্যাবের অধীনে দেখতে পাবেন। তারপর থেকে, আপনি হোল্ড করতে বা P2P মার্কেটপ্লেসে বিক্রি করতে সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

binance-collectibles-nfts


Binance NFT মার্কেটপ্লেস ব্যবহারকারীদের তাদের নিজস্ব সৃষ্টির NFT মিন্ট ও ট্রেড করার সুযোগ দেয়। এতে সারা বিশ্বের বিখ্যাত নির্মাতাদের এক্সক্লুসিভ NFT রয়েছে, যেমন সঙ্গীতশিল্পী লুই ক্যাপালডি ও ক্রিপ্টো শিল্পী ট্রেভর জোন্স। প্ল্যাটফর্মটি মার্কেটপ্লেসের মাধ্যমে পরবর্তী সকল বিক্রয়ের জন্য নির্মাতাদের রয়্যালটি প্রদান করে।


Crypto Stamps

Crypto Stamps অস্ট্রিয়ান ডাক পরিষেবা কর্তৃক ইস্যু করা হয় ও ডিজিটাল বিশ্বকে বাস্তব জগতের সাথে সংযুক্ত করে। এই স্ট্যাম্পগুলো অন্যান্য স্ট্যাম্পের মতো মেইল পরিবহনের জন্য ব্যবহৃত হয়। কিন্তু, এগুলো ইথিরিয়াম ব্লকচেইনে ডিজিটাল ইমেজ হিসেবেও সংরক্ষিত হয়, যা সেগুলোকে একটি ট্রেডযোগ্য ডিজিটাল কালেক্টিবলে পরিণত করে।

crypto-stamps

what-are-nfts-cta2

শেষ কথা

ডিজিটাল কালেক্টিবলগুলো ব্লকচেইন প্রযুক্তির সামনে প্রচলিত আর্থিক অ্যাপ্লিকেশনের বাইরে সম্পূর্ণ নতুন দিগন্ত উন্মোচন করে। ডিজিটাল বিশ্বে ফিজক্যাল অ্যাসেটের প্রতিনিধিত্ব করার মাধ্যমে NFT ব্লকচেইন ইকোসিস্টেম ও বৃহত্তর অর্থনীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হতে পারে।

ব্যবহার ক্ষেত্রেগুলো বিশাল এবং অনেক ডেভেলপারই এই প্রতিশ্রুতিশীল প্রযুক্তির জন্য নতুন ও এক্সাইটিং উদ্ভাবন নিয়ে আসবেন তার সম্ভাবনা প্রবল।